অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা ২০২৪-অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা আবেদন

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা
অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা

প্রিয় পাঠক আশা করি ভালো আছেন, অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিয়ে জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। অস্ট্রেলিয়ার মত বৃহত্ত একটি দেশে প্রতিবছর বিপুলসংখ্য কর্মী নেয়। সকল কর্মী গুলোর মধ্যে যে কর্মীদের চাহিদা অনেক বেশি সেটি হল ক্লিনার। হ্যাঁ বন্ধুরা আপনি ঠিকই শুনেছেন অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসার চাহিদা অনেক।

অস্ট্রেলিয়া দেশটি প্রতিটা সেক্টরেই ব্যাপকভাবে উন্নতি করে যাচ্ছে। শিক্ষার সংস্কৃতি বিজ্ঞান সব দিক দিয়েই সমানভাবে এগিয়ে যাচ্ছে বহির্বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে। এবং বহির্বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে যাওয়ার জন্য তাদের অনেক শ্রমিক প্রয়োজন হয়। অস্ট্রেলিয়াতে যে শ্রমিক করল নিয়ম দেওয়া হয় তার বেশির ভাগই হলো এশিয়া মহাদেশের।

বর্তমানে এই টাকা উত্তোলন করতে পারবে তা অনেকটাইেন্টরাও কিন্তু বিভিন্ন ধরনের ভিসা নিয়ে সেখানে কাজ করতে যাচ্ছে তাই আপনি যদি কাজের ভিসা অথবা স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে যেতে চান তাহলে কিন্তু আগে থেকে আপনাকে সমস্ত বিষয়গুলো জেনে নিতে হবে আবার অনেকেই ১০ লক্ষ টাকা অথবা ১২ লক্ষ টাকা খরচ করে  যাচ্ছে সেক্ষেত্রে কিন্তু তারা কত মাসে টাকা তুলতে পারবে সে বিষয়ে এখনো কিন্তু তারা জানে না তাই অবশ্যই এগুলো জেনে নিয়ে তারপরে অস্ট্রেলিয়াতে যাওয়া উচিত।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা 2024

অস্ট্রেলিয়ার একটি উল্লেখযোগ্য পেশার নাম হল ক্লিনার ভিসা। কারণ অনেকে রয়েছে যারা অস্ট্রেলিয়াতে গিয়ে করার অধিকারের মধ্যে কঠোর পরিশ্রম করতে পারেন না। সে সকল মানুষগুলো খুব সহজেই অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসায় যুক্ত হতে পারেন। কারণ এই কাজের জন্য অতিরিক্ত কোন শ্রম দেওয়ার প্রয়োজন হয় না।

আজকে আমাদের এ কনটেন্ট এর মধ্যে দিয়ে আপনাদেরকে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা সম্পর্কে জানানোর চেষ্টা করব। অনেক মানুষ হয়ে রয়েছে যারা অস্ট্রেলিয়ার ক্লিনার ভিসা যেতে চাই কিন্তু কিভাবে যেতে হয় তার প্রসেসটি জানেন না। যার কারণে হয়তোবা স্বপ্নের দেশে পাড়ি জমাতে ব্যর্থ হন। আজকে আমাদের এই কনটেন্টের মাধ্যমে আপনারা একটি সঠিক ধারণা পাবেন যে কিভাবে আপনি অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাবেন।

২০২৪ সালে যারা অস্ট্রেলিয়াতে ক্লিনার ভিসা নিয়ে যেতে চাচ্ছে তাদের ক্ষেত্রে কিন্তু এবার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে কেননা অস্ট্রেলিয়াতে ক্লিনার ভিসা নিয়ে যেতে হলে খরচ তেমন পড়ছেনা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে যদি ইংলিশ ভালো দক্ষতা থাকে তাহলে কিন্তু সে অনায়াসে অস্ট্রেলিয়াতে ক্লিনার ভিসা নিয়ে যেতে পারবে।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা আবেদন

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা আবেদনের জন্য আপনাকে বেশ কিছু প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। আবেদন প্রক্রিয়াটি আপনি চাইলে অনলাইনে করতে পারেন অথবা বাংলাদেশের অবস্থিত যে কোন এজেন্সির মাধ্যমেও অস্ট্রেলিয়ায় ক্লিনার বেশি আবেদন করতে পারবেন। তবে আপনি যে পদ্ধতিতে আবেদন করেন না কেন সঠিক এবং নির্ভুলভাবে আবেদন করতে পারলেই সবচেয়ে দ্রুত সময়ে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাবেন।

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসায় আবেদন করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে যে কোন একটি ব্রাউজার থেকে এই ওয়েবসাইটে যেতে হবে। ওয়েব সাইটে যাওয়ার পর আপনি ভিসা আবেদন করার অপশনে গিয়ে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে খুব সহজেই অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার বিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও আপনার জন্য যদি অনলাইনে আবেদন করাটা কঠিন হয়ে যায় তাহলে আপনি খুব সহজেই এজেন্সিতে গিয়ে আবেদন করে নিতে পারবেন।

অস্ট্রেলিয়া ভিসা কিভাবে পাবেন

অস্ট্রেলিয়ার ভিসা কিভাবে পাবেন? এ প্রশ্নের উত্তরে বলা যায় যে অস্ট্রেলিয়া ভিসা পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই প্রথমে একটি নির্দিষ্ট সিলেক্ট করতে হবে। আপনি কোন ক্যাটাগরিতে অস্ট্রেলিয়া ভিসা নিতে চাচ্ছেন সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আপনি যদি অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পেতে চান তাহলে আপনাকে এজেন্সিতে গিয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসার জন্য  আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলে কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। এবং এজেন্সি থেকে আপনাকে নির্দিষ্ট একটি সময়ে চিঠির মাধ্যমে পরবর্তী রিক্রুটমেন্ট গুলো জানিয়ে দেওয়া হবে। পরবর্তী রিক্রুটমেন্টগুলো নিয়ে আপনি আবার এজেন্সিতে যাবেন। তবে মাথায় রাখবেন কোন ধরনের জালিয়াতির চেষ্টা করবেন না, কারণ অস্ট্রেলিয়া ভিসার জন্য যারা জালিয়াতি ও প্রতারণার চেষ্টা করে তাদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সকল রিকোয়ারমেন্ট গুলো যদি সঠিক এবং সুন্দরভাবে প্রদর্শন করেন তাহলে যাচাই-বাছাই শেষে খুব শীঘ্রই আপনার ভিসা তৈরি হয়ে যাবে। কিন্তু আপনার যদি কোন ধরনের সমস্যা থেকে থাকে তাহলে ভিসার কার্যক্রম সম্পন্ন হতে অনেক বেশি সময় লেগে যাবে। তাই অবশ্যই সর্বক্ষণ চেষ্টা করবেন সঠিক এবং নির্ভুলভাবে রিক্রুটমেন্টগুলো জমা দেওয়ার। প্রয়োজনে বারবার এজেন্সি থেকে জেনে নেবেন।

এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা

হ্যাঁ বন্ধুরা ঠিক শুনেছেন এজেন্সির মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাওয়া সম্ভব। অনেকেই আছেন যাদের অস্ট্রেলিয়ায় কোন নিকটস্থ মানুষ নেই। কিন্তু আপনিও অস্ট্রেলিয়া যেতে চান। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে নিজের স্বপ্নগুলো বাস্তবায়ন করতে চান। কিন্তু অস্ট্রেলিয়াতে কেউ না থাকায় আপনার ভিসা কার্যক্রমটি কিভাবে করবেন সেটি বুঝতে পারছেন না। এ বিষয়ে অতিরিক্ত টেনশন করার কিছু নেই, আপনি খুব সহজেই বাংলাদেশ অবস্থিত যে কোন এজেন্সি থেকে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিতে পারবেন।

তবে আপনি যখন এজেন্সি থেকে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসার জন্য আবেদন করবেন, তখন একটু সচেতন থাকতে হবে কিছু বিষয়ের উপর। কারণ বাংলাদেশে অবস্থিত প্রতিটি এজেন্সি কিন্তু একরকম নয়। অনেকে এজেন্সি রয়েছে যেগুলো দালাল ও প্রতারকদের কারখানা। তাই আপনাকে অবশ্যই সঠিক এজেন্সি গুলো চিনতে হবে এবং সঠিক এজেন্সি গুলো থেকে আবেদন করতে পারলে তবে আপনি সবচেয়ে দ্রুত সময়ে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাবেন।

আরো পড়ুনঃ  রোমানিয়া থেকে কোন কোন দেশে যাওয়া যায় ( খরচ কত )

এক্ষেত্রে আমাদের সাজেশন থাকবে আপনার যদি বাংলাদেশের এজেন্সি গুলো সম্পর্কে কোন ধরনের ধারণা না থাকে সেক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই বোয়েসেল নিবন্ধিত যে এজেন্সি গুলো রয়েছে সেগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর এ ধরনের এজেন্সি গুলো থেকে বিপুল সংখ্যক কর্মী অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিচ্ছে। এবং এজেন্সি গুলো খুবই অল্প টাকায় কম সময়ে নিরাপদ ভাবে আপনাকে ভিসা প্রদান করবে।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা
                                                  অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসার দাম কত

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা যেতে হলে সর্বমোট চার থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা খরচ হবে। তবে আপনি যদি কোন দালাল অথবা প্রতারক চক্র গুলোর সঙ্গে চুক্তি করে অস্ট্রেলিয়া যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার ৭ থেকে ১২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। কারণ এ সকল দালাল চক্রগুলো আপনাকে নানা রকম কাজের অজুহাত দেখিয়ে অনেক টাকা হাতিয়ে নেবে। যদিও এদের মধ্যে অনেকেই রয়েছে যারা অস্ট্রেলিয়ায় কাজের কথা বলে আপনাকে শেষ পর্যন্ত একেবারে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে দেবে।

তাই আপনি যদি একজন সচেতন নাগরিক হন তাহলে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাবার জন্য অবশ্যই এ সকল দালাল ও প্রতারক চক্রদের সাথে কখনোই কোন অর্থের চুক্তি করবেন না। অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নেই তাহলে আপনি যদি পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে না জানেন তাহলে বাংলাদেশের যে কোন এজেন্সিতে গেলে আপনাকে খুব সহজেই সকল প্রক্রিয়া সম্পর্কে ধারণা দিয়ে দেবে। এবং এজেন্সি থেকে আপনি যদি সরাসরি ভিসা করেন তাহলে ঝামেলা অনেকটাই কমে যাবে।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসায় বেতন কত

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসার জন্য আপনাকে সর্বোচ্চ 70 হাজার থেকে এক লক্ষ 20 হাজার টাকা পর্যন্ত প্রদান করা হবে। আপনি যখন নতুন অবস্থায় যাবেন তখন আপনার বেতন কিছুটা কম থাকবে। এবং পরবর্তীতে আপনার কাজের ধরন এবং আপনার ব্যবহারের উপর নির্ভর করে আপনার বেতন বাড়িয়ে দেওয়া হবে। তবে আপনি ঠিক যতটা তাড়াতাড়ি আপনার স্কিল গুলো ডেভেলপ করে নিতে পারবেন তত তাড়াতাড়ি আপনার বেতন বৃদ্ধি পাবে।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই ক্লিনার ভিসা | দুবাই ক্লিনার ভিসার দাম কত

২০২৪ সাল অনুযায়ী বর্তমানে ক্লিনার ভিসার বেতন কিন্তু আগের তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে বর্তমানে ক্লিনার ভিসা নিতে হলে প্রায় খরচ পড়ছে পাঁচ লক্ষ টাকার মত এবং বেতন পাওয়া যাচ্ছে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা থেকে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত। তাই আপনারা যারা এই ভিসা নিয়ে যেতে চাচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রে একটা বিষয় জেনে রাখা ভালো যে ভিসা নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনার কোম্পানি কত টাকা বেতন দিবে সেই অনুযায়ী ভিসা নেওয়া।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার কাজের বেতন

অস্ট্রেলিয়ায় ক্লিনার কাজের জন্য সাধারণত ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হয়। তবে এক লক্ষ 20 হাজার টাকা বেতন পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার বিশেষ এ সমস্ত কাজগুলো করা হয় সে কাজগুলোর উপর যদি আপনার ভালো অভিজ্ঞতা থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে এক লক্ষ 20 হাজার টাকা পর্যন্ত প্রদান করা হবে। তবে আপনি যদি নতুন অবস্থায় অস্ট্রেলিয়া কিনার ভিসায় কাজ করতে যান সে ক্ষেত্রে আপনাকে সর্বোচ্চ 70 হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

আগের তুলনায় অস্ট্রেলিয়া তে যারা ক্লিনার ভিসা সহ অন্যান্য কাজে যাচ্ছে তাদের ক্ষেত্রে বেতন কিন্তু আরও বেশি পরিমাণ হচ্ছে বর্তমানে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত বেতন পাওয়া যাচ্ছে। তাই আপনারা যারা অস্ট্রেলিয়াতে ক্লিনার ভিসা সহ অন্যান্য যেকোনো ধরনের ভিসার বেতন সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য গুলো জানবেন তখন কিন্তু আপনার এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে এই সমস্ত তথ্যগুলো পেয়ে যাবেন।

মনে রাখবেন অস্ট্রেলিয়াতে কিন্তু অন্যান্য দেশের তুলনায় বেতন আনুমানিক বেশি থাকে তাই আপনি যখন এই অস্ট্রেলিয়াতে কাজের উদ্দেশ্যে যাবেন তখন কিন্তু আপনার কোম্পানির মাধ্যমে এই বিষয়টি আগে থেকে জেনে নেওয়া উচিত তা না হলে কিন্তু আপনি প্রতারণার শিকার হতে পারেন কেননা অনেক কোম্পানি আছে যারা কিনা বাংলাদেশ কোম্পানিকে টাকা দিলে সেই অনুযায়ী তাদেরকে বেতন প্রোভাইড করা হয়ে থাকে।

অস্ট্রেলিয়াতে নিজের ইচ্ছামতো নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী যদি কাজ করে থাকেন তাহলে কিন্তু অবশ্যই এ বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরী অনেক এজেন্সি রয়েছে যারা কিনা আপনাকে সেখানে কাজে পাঠানোর পরে পরবর্তীতে যেকোনো সময় কিন্তু আপনাকে বেতন প্রদান করতে পারে এক্ষেত্রে কিভাবে বেতন পাবেন এবং কত টাকা পাবেন সেই অনুযায়ী আপনাদেরকে ডিসাইড করা উচিত।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা পাওয়ার এজেন্সি

অস্ট্রেলিয়ার ক্লিনার ভিসা পাওয়ার জন্য যদি আপনি এজেন্সি থেকে আবেদন করতে চান এবং এজেন্সির মাধ্যমে সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে চান তাহলে আপনাকে যেকোনো এজেন্সি থেকে সরাসরি আলাপ করতে হবে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে অনেকগুলো এজেন্সি রয়েছে আপনাকে নির্ধারণ করতে হবে আপনি কোন ধরনের এজেন্সি গুলো থেকে অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা আবেদন করতে চান। তবে আমাদের সাজেশন থাকবে যে আপনি অবশ্যই বোয়েসের নিবন্ধিত যে এজেন্সি গুলো রয়েছে সেখান থেকে আবেদন করবেন।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসায় কি ধরনের কাজ করে

অস্ট্রেলিয়ায় ক্লিনার ভিসা গিয়ে বাঙালিরা সাধারণত যে কাজগুলো করে তার একটি তালিকা নিচে দেওয়া হল:

  • মসজিদ ক্লিনার
  • বাসা বাড়ির কাজ
  • কেয়ারটেকার
  • মালি
  • দোকান কর্মচারী
  • রাস্তা পরিষ্কারের কাজে
  • অস্ট্রেলিয়া স্টেডিয়ামে
আরো পড়ুনঃ  দুবাই রেস্টুরেন্ট ভিসা খরচ এবং আবেদন প্রক্রিয়া

অস্ট্রেলিয়ায় ক্লিনার ভিসা সাধারণত বাঙালিরা বেশ কিছু কাজে যোগদান করে থাকে। তবে আপনি ঠিক যতটা কাজে পারদর্শী হতে পারবেন আপনার জন্য ততটাই ভালো। আপনি যদি সেখানে গিয়ে ধীরে ধীরে আপনার স্কিল ডেভেলপ করে নিতে পারেন আপনার জন্য ততটাই আরামদায়ক হবে। এবং আপনি যত তাড়াতে যাবেন আপনার স্কিন ডেভেলপ করে নিতে পারবেন ঠিক তত তাড়াতাড়ি আপনার বেতন পেতে পাবেন।

অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিয়ে সতর্কতা

আপনার স্বপ্ন যদি হয়ে থাকে অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়া, এবং সেখানে গিয়ে ক্লিনার বিষয়ে কাজ করা, তাহলে অবশ্যই আপনাকে বেশ কয়েকটি বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো আপনি যখন অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিতে যাবেন তখন আপনাকে বেশি কিছু দালাল ও প্রতারক চক্র নানাভাবে প্রবাহিত করার চেষ্টা করবেন। সকল দালাল চক্র আপনাকে অল্প টাকায় দ্রুত সময়ের মধ্যে ভিসা তৈরি করে দেখার লোভ দেখাবে।

যে সকল মানুষের সকল লোভের জন্য দালাল চক্রের সাথে চুক্তি করে তারা ব্যাপকভাবে প্রতারণার শিকার হয়। কারণ দালাল ও প্রতারক চক্র কখনো অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা প্রদান করতে পারে না। অস্ট্রেলিয়া ক্লিনার ভিসা নিতে হলে অবশ্যই আপনাকে একটি এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। এবং কোন ভাবে কোন ধরনের জালিয়াতি করার চেষ্টা করা যাবে না, মনে রাখবেন

ওমান কাজের ভিসা ২০২৩-ওমান ভিসার দাম কত

6 Comments

  1. Azgour ali

    আমি অসেট্রলিয়া যেতে চাই

  2. Md Ziaur Rahman

    I want to go in Australlia for worker

    • খুরশিদ আলম

      হোটেল, টাইলস, ক্লিনার, আমার এসব কাজের অভিজ্ঞতা আছে আমি অস্ট্রেলিয়া যেতে চাই, যদি সরকারি ভাবে যাওয়া যায়, কারণ আমার কাছে এত টাকা নাই, যদি আপনার একটু সহায়তা করেন

  3. Abdur Rahman

    Agriculture visa in Bangladeshi worker available. How and where apply.agriculture visa.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *