অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা | অস্ট্রেলিয়ার লেবার ভিসা আবেদন

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা
অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা

অস্ট্রেলিয়া দেশটির নাম শুনলে অনেকে স্বপ্ন দেখে সেখানে গিয়ে নিজের স্বপ্নগুলোকে জাগ্রত করে তুলবে। কারো এশিয়া মহাদেশের অনেক তরুণ যুবক বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে অর্থনৈতিকভাবে ব্যাপক স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছে। তারাই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ থেকেও অনেক বেকার যুবক বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা যাওয়ার জন্য আগ্রহী হয়। তাই আজকে আমরা লেবার ভিসা নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা ২০২৩

করোনার সময়ের ধাক্কাটা এখনো পুরোপুরি সামলে উঠতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় ব্যাপকভাবে শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার অধিবাসীরা শ্রমিক না পাওয়ায় হতাশায় ভুগছে। এরা মাঝে অস্ট্রেলিয়ার সরকার বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নেওয়ার জন্য বিজ্ঞপ্তি জানিয়েছে। তারা ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ থেকেও বিপুল পরিমাণ শ্রমিক নেওয়ার কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

আজকে আমরা আমাদের এই কন্টেন্টের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। আমাদের কন্টেন্টের মাধ্যমে পরিষ্কারভাবে বুঝতে পারবেন যে, অস্ট্রেলিয়া লেবার  ভিসা জন্য কিভাবে আবেদন করতে হয়, এছাড়া কোন পদ্ধতিতে আবেদন করলে আপনার আবেদনটি সবচেয়ে দ্রুত সম্পন্ন হতে পারে। এবং অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসার দাম কত? অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা কিভাবে প্রসেসিং করতে হয়? অস্ট্রেলিয়া কত টাকা বেতন পাওয়া যায় এবং কোন কোন কাজগুলো অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা জন্য সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ সে সকল বিষয় নিয়েই আমাদের আজকের এই কন্টেন্ট।

অস্ট্রেলিয়ার লেবার ভিসা আবেদন

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা আবেদন একেবারে সহজ বিষয়। খুব সহজে আপনি অনলাইন কিংবা এজেন্সি থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে মনে রাখবেন ভেসে আবেদন করার সময় আপনাকে ব্যাপকভাবে সচেতন থাকতে হবে। কারণ অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা আবেদনের যদি কোন ভুল থেকে থাকে তাহলে আপনার আবেদনটি গ্রহণযোগ্য হবে না। তাই আবেদন করার সময় নির্ভুল ভাবে আবেদন করার চেষ্টা করবেন।

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা দাম

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা পেতে হলে বর্তমানে প্রায় ১৩০০ ডলার খরচ করতে হবে। বাংলাদেশী টাকায় এটি প্রায় দেড় লক্ষ টাকার মতো। তবে এদের লক্ষ টাকা ছাড়াও আরো বেশ কিছু কাজ করার জন্য অন্যান্য টাকার প্রয়োজন হয়। তবে সবকিছু মিলিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার মধ্যে একজন বাংলাদেশী নাগরিক অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা পেয়ে যাবে। এছাড়াও আপনি সরকারিভাবে লেবার ভিসা নিলে খরচ কিছুটা কম হবে।

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা কিভাবে পাবেন

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনাকে একটি প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। আবেদনটি অনেকে অনলাইনের মাধ্যমে করে থাকে। তবে আপনি যদি অনলাইন না বুঝে থাকেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই বাংলাদেশের যেকোনো একটি এজেন্সিতে গিয়ে আবেদন করে নিতে হবে। এবং এজেন্সি থেকে শুধু আবেদন নয়, লেবার ভিসা পাওয়ার পুরো প্রসেস সম্পর্কে সহযোগিতা করবে যেকোনো এজেন্সি।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই ভিসা চেক করার সহজ নিয়মে ( এক ক্লিকেই )

এছাড়া আপনি যদি মনে করেন অস্ট্রেলিয়ায় আপনার নিকটতম কোন প্রতিবেশীর থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা নিবেন সে ক্ষেত্রে আপনার জন্য সবথেকে সুবিধা হবে। কারণ অস্ট্রেলিয়ায় যে মানুষগুলো বর্তমানে অধিবাসী হিসেবে রয়েছে তাদের থেকে ভিসা নিলে খুব সহজেই অল্প খরচে ঝামেলা মুক্তভাবে ভিসা নিতে পারবেন। কিন্তু দেশে থেকে ভিসা নিলে অনেক সময় প্রতারণার শিকার হতে হয়।

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা প্রসেসিং

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা প্রসেসিং একেবারে সহজে এবং সাধারণ বিষয়। আপনি বাংলাদেশে থাকেন কিংবা দেশের বাহিরে থাকেন, সব জায়গা থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা সংগ্রহ করতে পারবেন। অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা সংগ্রহ করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি প্রাথমিক ভিসা আবেদন করতে হবে। এর আবেদনটি আপনার মূল বিষয়। আবেদনে আপনি যে বিষয়গুলো যেভাবে যেভাবে উল্লেখ করবেন সেটার উপরে নির্ভর করবে আপনার ভিসা আসতে কত দিন সময় লাগবে।

এছাড়া আবেদনের যদি কোন প্রকার ভুল করেন তাহলে আবেদন বাতিল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। পাশাপাশি আপনি আবেদন করার সময় যে অর্থ খরচ করেছেন সেটিও আর ফেরত পাবেন না। শুধু আবেদন ভুল নয় অনেক মানুষ রয়েছে যারা জালিয়াতির চেষ্টা করে। এ ধরনের জালিয়াতি যদি ধরা পড়ে তাহলে আপনাকে কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে। এবং আপনি নির্দিষ্ট একটি সময়ের জন্য আর কখনো দেশের বাহিরে যেতে পারবেন না।

তাই অস্ট্রেলিয়া প্রসেসিং করার সময় কোন ধরনের ভুল এবং জালিয়াতি করার চেষ্টা করবেন না। আপনি যদি সঠিক তথ্য দিয়ে আবেদন করে থাকেন তাহলে সর্বোচ্চ ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে আপনার অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা প্রসেসিং সম্পন্ন হবে। অস্ট্রেলিয়া লেবার বিষয় আবেদন অনলাইন করা যায় তবে কোন এজেন্সি তে গিয়ে আবেদন করলে বিষয়টি আরো সহজ হয়।

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা বেতন কত

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা বেতন সাধারণভাবে ১ লক্ষ ২০ হাজার থেকে 2 লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। পৃথিবীর চেয়ে দেশগুলো লেবার ভিসার সবচেয়ে বেশি বেতন দিয়ে থাকে তাদের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্যতম। অস্ট্রেলিয়ার বিপুলসংখ্যক মানুষ অধিবাসী। এবং এরা বেশিরভাগ ও লেবার ভিসার কাজ করে থাকে। আপনি যদি প্রথম অবস্থায় অস্ট্রেলিয়া যান তাহলে ১ লক্ষ ২০ হাজার থেকে দেড় লক্ষ টাকার মতো আয় করতে পারবেন। তবে ধীরে ধীরে আপনার স্কিল ডেভেলপ করার সাথে সাথে আপনার বেতন বৃদ্ধি পেয়ে যাবে।

সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা

সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়া পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। তবে এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে আপনি যদি বেসরকারি এজেন্সি গুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেন তাহলে কিন্তু সরকারি ভিসা পাবেন না। সরকারিভাবে অস্ট্রেলিয়ার যাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনাকে বোয়েসেল নিবন্ধিত একটি এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। সেই সাথে সরকারিভাবে কখন অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা যাওয়ার জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সেগুলোর প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। এক্ষেত্রে আপনারা বাংলাদেশের প্রবাসী মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন।

 

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা
                                                      অস্ট্রেলিয়া লেবার

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা বর্তমানে কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি নেই। কারণ ২০২২ সালে যতগুলো শ্রমিক নেওয়ার কথা ছিল সেগুলো নেওয়া হয়েছে। তার মানে কিন্তু এমনটা নয় যে আপনি অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা তে যেতে পারবেন না। সম্প্রীতি অস্ট্রেলিয়া সরকার জানিয়েছে তাদের আরো অনেকগুলো লেবার প্রয়োজন। কিন্তু এখনো সেই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেনি মন্ত্রণালয়।

অস্ট্রেলিয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার সঙ্গে সঙ্গে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে আপডেট জানিয়ে দিব। তাই অস্ট্রেলিয়া লেবার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে আপনি যদি আপডেট রাখতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করতে হবে। অথবা আমাদের এই ওয়েবসাইটটি আপনারা ফলো দিয়ে রাখতে পারেন সে ক্ষেত্রে আমাদের আপডেট তথ্যগুলো আপনারা পেয়ে যাবেন।

আরো পড়ুনঃ  বাহরাইন ভিসা কবে খুলবে ২০২৩-বাহারাইন নতুন ভিসার খবর

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • একটি পাসপোর্ট থাকতে হবে
  • ছবি লাগবে। ছবিটি অবশ্যই সাম্প্রতিক তোলা হতে হবে।
  • লেবার ভিসায় আবেদনের কপি লাগবে
  • যে কোম্পানিতে কাজ করতে যাচ্ছেন সেখানকার বিবরণ, এবং এয়ার টিকিটের কপি
  • মেডিকেল সার্টিফিকেট থাকতে হবে
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট করতে হবে
  • একটি বৈধ ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট থাকতে হবে। এবং এখানে একটি স্পন্সরের নাম থাকতে হবে।
  • কাজ করার পর আপনি আবার দেশে ফিরে আসবেন এরকম কিছু প্রমাণ পত্র

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসার ১০ টি কাজ

রাস্তা পরিষ্কার
স্টেডিয়াম
ক্যাঙ্গারুপালন
খামার
গ্যারেজ ক্লিনার
বাসা বাড়ি
কেয়ারটেকার
মসজিদ ক্লিনার
মালি
দারোয়ান

দেশের বাহির থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা কিভাবে পাবেন

দেশের বাহির থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা পেতে হলে আপনাকে সর্বপ্রথম বাংলাদেশ প্রবাসী মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা সার্কুলার সম্পর্কে জানতে হবে। কোন সময় সার্কুলার প্রকাশ করছে সেটার উপর আপনাকে অনলাইন থেকে আবেদন করতে হবে।বিশেষভাবে মনে রাখবেন আবেদন যেন কোনভাবেই ভুল না হয় এবং কোন তথ্য জালিয়াতি করার চেষ্টা করবেন না। সকল তথ্য এবং রিকোয়ারমেন্ট গুলো যদি সঠিকভাবে পূরণ করেন তাহলে খুব সহজেই আপনি দেশের বাহির থেকে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা পেয়ে যাবেন।

অস্ট্রেলিয়া লেবারের কাজ কেমন কঠিন

অন্যান্য দেশের চেয়ে তুলনামূলকভাবে একটু বেশি কঠিন অস্ট্রেলিয়ায় কাজ করা। কারণ অস্ট্রেলিয়া যারা লেবার ভিসায় আসে তাদের বেশিরভাগই অতিরিক্ত গরমের মধ্যে কাজ করতে হয়। যেহেতু অস্ট্রেলিয়ার তাপমাত্রা অনেক বেশি থাকে তাই এ সকল লেবারদের জন্য অস্ট্রেলিয়াতে কাজ করা অনেক বেশি কষ্টকর হয়ে পড়ে। তবে লেবার ভিসার মধ্যে সব ধরনের কাজ কঠিন নয়। লেবার ভিসার মধ্যে অনেক কাজ রয়েছে সেগুলো আপনি খুবই স্বাচ্ছন্দের সাথে করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই ড্রাইভিং ভিসা | দুবাই ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

অস্ট্রেলিয়া লেবারের কাজের সুবিধা

অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা কাজের জন্য অতিরিক্ত তেমন কোন সুবিধা, তবে বিশেষভাবে মনে রাখতে হবে অন্যান্য দেশে লেবারদের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ার লেবারদের বেতন তুলনামূলকভাবে বেশি হয়। এছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার লেবাররা একটি কাজের পাশাপাশি আরো অন্যান্য কাজ করে বাড়তি আয় করতে পারে। তবে অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসায় আসলে অবশ্যই আপনাকে নির্দিষ্ট একটি কাজের উপর প্রশিক্ষণ নিয়ে আসতে হবে।

কানাডা লেবার ভিসা ২০২৩-কানাডা লেবার বেতন কত

আজকে আমরা এখানে আলোচনা করেছি অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে। তবে আপনারা যদি অন্যান্য দেশের লেবার ভিসা সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের মেনু শাখা থেকে অন্যান্য দেশের লেবার ভিসা সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাহলে এই ছিল আজকে আমাদের অস্ট্রেলিয়া লেবার ভিসা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য ধন্যবাদ সবাইকে। অস্ট্রেলিয়ার লিভার ভিসা সংক্রান্ত তথ্য আরও জানতে হলে আমাদের কমেন্ট সেকশনে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

4 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *