বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩-বাহরাইন ভিজিট ভিসা খরচ

বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩
বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩
Contents show

প্রিয় বন্ধুরা বাহারাইন এমন একটি দেশ যেখানে যাওয়ার জন্য ইসলাম ধর্মীয় মানুষেরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে। কিন্তু আপনারা হয়তোবা অনেক দিন থেকে বাহরাইন যাওয়ার নানা রকম চেষ্টা করেও বাহরাইন যেতে পারছেন না। কারণ বাংলাদেশ থেকে বাহরাইন যাওয়ার জন্য যত ধরনের ভিসা রয়েছে সকল ভিসা বন্ধ করে দিয়েছেন। ভিসা বন্ধ করে দেওয়া প্রায় সাত বছর হয়ে গেল।

তবে বাঙালিরা কিন্তু বিভিন্ন উপায়ে অন্য দেশ থেকে বাহরাইন গিয়ে কাজ খুঁজে নিচ্ছিল। তবে বর্তমান সময়ের সুখবর চেয়ে বাংলাদেশ থেকে বাহরাইন ভিজিট ভিসা চালু হয়েছে। এবং ভিজিট ভিসার মাধ্যমে বাহরাইন গিয়ে পারমিট ভিসার মত কাজ করা যায়। তাই যারা বাহারাইন গিয়ে কাজ করার স্বপ্ন দেখে থাকেন তাদের জন্য এ খবরটি সত্যি অনেক আনন্দদায়ক।

বাহরাইন ভিজিট ভিসা কত টাকা

বাংলাদেশ থেকে যদি আপনি বাহরাইন ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করেন সে ক্ষেত্রে আপনার খরচ হবে ৭০০ দিরহাম। ৭০০ দিরহামকে যদি আপনি বাংলা টাকায় কনভার্ট করেন সে ক্ষেত্রে আপনার খরচ পড়বে প্রায় দেড় লক্ষ টাকা। । অর্থাৎ দেড় লক্ষ টাকা খরচ করে আপনি খুব সহজে বাহারাইন ভিজিট ভিসা  সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে আপনি যদি দুবাই, কুয়েত সহ অন্যান্য দেশগুলো থেকে বাহরাইন ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করেন তাহলে টাকার পরিমাণ কিছুটা বেশি হতে পারে।

বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩

যে সকল শ্রমিকের বাহারাইন গিয়ে কাজ করার তীব্র ইচ্ছা কিন্তু বাহরাইনে সকল প্রকার ভিসা বন্ধ থাকার কারণে দীর্ঘদিন থেকে বাংলাদেশ থেকে কোন মানুষ বাহরাইন যেতে পারছে না। এ সকল মানুষদের জন্য বিশেষ সুবিধা হল সম্প্রীতি বাহরাইন ভিজিট ভিসা চালু হয়েছে। তাই আপনি বর্তমানে খুব সহজেই বাহরাইন ভিজিট ভিসার মাধ্যমে সেখানে অভিগমন করতে পারবেন।

বাংলাদেশ থেকে বাহরাইন সরকার ভিসা বন্ধ করে দেয় প্রায় সাত বছর আগে। সাত বছরের মধ্যে কোন শ্রমিক বাংলাদেশ থেকে সরাসরি বাহরাইন যেতে পারে নি। যদিও যারা একটু সচেতন ছিল তারা বিভিন্ন দেশের মাধ্যমে ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করে বাহরাইন পৌঁছেছে।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই যেতে কত বছর বয়স লাগে জেনে নিন

তাই আজকে আমরা আপনাদের মাঝে এমন একটি কনটেন্ট সম্পর্কে আলোচনা করতে চাচ্ছি যে কনটেন্টটি সম্পর্কে আপনি বাহরাইন ভিজিট ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পারবেন। কারণ অনেকদিন থেকে বাহারাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে কোন মানুষ না যার কারণে প্রসেসটি সম্পর্কে অনেকেই এখনো অজানা। তাই আপনি  বাহরাইন ভিজিট ভিসা সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের এই কন্টেন্ট মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

বাহরাইন ভিজিট ভিসা কিভাবে করবেন

বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিতে হলে অবশ্যই আপনাকে যেকোনো একটি এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। এবং দীর্ঘদিন থেকে বাহরাইন ভিজিট ভিসা বন্ধ থাকার কারণে বেশ কিছু নতুন প্রসেস চালু হয়েছে। এগুলো সম্পর্কে সরাসরি জানতে হলে আমাদের সঙ্গে থাকুন। আমরা বাহারাইন ভিসা কিভাবে পাবেন এবং ভিসা খরচ কত এবং ভিজিট ভিসা নিয়ে সেখানে গিয়ে কত দিন থাকতে পারবেন এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

বাহরাইন ভিজিট ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া

আবেদন প্রক্রিয়ায় একেবারে সহজে একটি বিষয়। যদিও দীর্ঘদিন বাহরাইন ভিজিট ভিসা বন্ধ থাকার কারণে আবেদন প্রক্রিয়াকে একটা জটিল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে আপনারা প্রথমে যে কোন একটি এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। অথবা আপনি যদি অনলাইনে ঘরে বসে নিজে আবেদন করতে চান সে ক্ষেত্রে আবেদন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে যে কোন সমস্যা এবং জটিলতায় পড়লে আমাদের কমেন্ট সেকশনে কমেন্ট করলে আমরা আপনাদেরকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করব।

আরো পড়ুনঃ  ইতালি টুরিস্ট ভিসা ২০২২ আবেদন, খরচ, সহ বিস্তারিত
বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩
বাহরাইন ভিজিট ভিসা ২০২৩

বাহরাইন ভিজিট ভিসার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

প্রিয় পাঠক বাহরাইন ভিজিট ভিসার জন্য অতিরিক্ত কোন কাগজের প্রয়োজন হয় না। সাধারণভাবে কয়েকটি ডকুমেন্টস যদি আপনার থাকে তাহলে আপনি খুব সহজে বাহরাইন ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে যে ডকুমেন্টসগুলো আপনি জমা দিবেন সেগুলো যেন অবশ্যই সঠিক হয়। আমরা নিচে কয়েকটি ডকুমেন্টস এর তালিকা প্রকাশ করছি।

  • পাসপোর্ট
  • ভিসা আবেদন ফরম
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • কোভিড সার্টিফিকেট
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স
  • নাগরিক সনদপত্র
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি
  • পিতা-মাতার এন আইডি কার্ড

বাহরাইন ভিজিট ভিসা ফর বাংলাদেশ

বাংলাদেশীদের জন্য সব থেকে সুখবর হল দীর্ঘদিন পর বাহরাইন ভিজিট ভিসা চালু হয়েছে। কারণ বাঙ্গালীদের মধ্যে বাহরাইন গিয়ে কাজ করার আগ্রহটা প্রবল। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে বাহরাইন সরকার বাংলাদেশ থেকে সকল প্রকার ভিসা বন্ধ রাখার কারণে কোন শ্রমিক বাহারাইন যেতে পারছিল না। কিন্তু সম্প্রীতি বাহরাইন ভিজিট ভিসা চালু হওয়ার কারণে খুব সহজেই বাঙালিরা বাহরাইন যেতে পারবে।

বাহরাইন ভিজিট ভিসা খরচ

বাহরাইন ভিজিট ভিসা খরচ মূলত আপনার এয়ারলাইন্স টিকিটের উপর নির্ভর করবে। কারণ বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিতে হলে ভিসা খরচ হয় দেড় লক্ষ টাকার মত। এই দেড় লক্ষ টাকা শুধু বাহরাইন ভিজিট ভিসার দাম। তবে এই দামের মধ্যে এয়ারলাইন্স টিকিট ধরা হয় না। এয়ারলাইন্স টিকিটের দাম পরিবর্তনশীল, এবং আপনি কেমন ধরনের এয়ারলাইন্স এর মাধ্যমে যাতায়াত করবেন সেটা আপনার ব্যাপার। তবে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকার মধ্যেই ভাল ধরনের এয়ারলাইন্সে যাতায়াত করতে পারবেন। এক্ষেত্রে সর্বমোট 2 লক্ষ টাকার মধ্যেই বাহরাইন ভিজিট ভিসা পেয়ে যাবেন।

আরো পড়ুনঃ  বাহরাইন ফ্রি ভিসা-বাহারাইন ফ্যামিলি ভিসা

বাহরাইন ভিজিট ভিসা 3 মাসের মূল্য

বাহরাইন ভিজিট ভিসা দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার কারণে অনেক বছর আগে মানুষ যেই মূল্য ভিজিট ভিসা সংগ্রহ করতে পারতো তার থেকে অনেক বেশি টাকা খরচ হচ্ছে। বর্তমান সময়ে বাহারাইন ভিজিট ভিসা তিন মাসের জন্য নিতে হলে দুই থেকে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। তবে আপনি কেমন ধরনের এয়ারলাইন্স ব্যবহার করবেন এবং কোন এজেন্সি থেকে করছেন সেটার উপর খরচ নির্ধারিত হয়।

বাহরাইন ভিজিট ভিসায় কি কাজ করা যায়

হ্যাঁ বন্ধুরা বাহরাইন ভিজিট ভিসায় কাজ করা যায়। আপনি খুব সহজেই বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে সেখানে গিয়ে আপনার ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে আলাদা খরচ গ্রহণ করতে হবে। ভিজিট ভিসা নিয়ে গিয়ে সেখানে এক বছর এবং দুই বছরের মেয়াদে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা তৈরি করে নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে দুই বছরের জন্য ওয়ার্ক পারমিট ভিসা তৈরি করতে হলে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা খরচ হবে। এবং প্রতি মাস পর ৮ হাজার টাকা দিতে হয়।

বাহরাইন ভিজিট ভিসায় কতদিন থাকতে পারবেন

প্রিয় বন্ধুরা আপনারা যারা সম্প্রতি বাহারাইন ভিজিট ভিসা নিতে চাচ্ছেন এবং অনেকেই আমাদের অফিসে প্রশ্ন করেন যে বাহরাইন ভিজিট ভিসায় কতদিন থাকা যায়? আপনাদের এই প্রশ্নের উত্তরে বলা যায় আপনি বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে সর্বোচ্চ তিন মাস অবস্থান করতে পারবেন। তবে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই এই তিন মাসের মধ্যেই আপনি আপনার ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারবেন এবং সেখানে ওয়ার্ক পারমিট ভিসার মত কাজ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  রোমানিয়া থেকে কোন কোন দেশে যাওয়া যায় ( খরচ কত )

বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে সতর্কতা

প্রিয় বন্ধুরা আপনারা যারা বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে সেখানে গিয়ে কাজ করার উদ্দেশ্য নিয়ে ভিসা সংগ্রহ করতে চাচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রে একটু সতর্কমূলক কথা বলতে চাই। কারণ আমরা সর্বদা মানুষকে সচেতন এবং সঠিক পথ প্রদর্শন করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। আপনাকে মাথায় রাখতে হবে দীর্ঘদিন ধরে বাহারাইন ভিজিট ভিসা সহ সকল ধরনের ভিসা বন্ধ থাকার কারণে ভিসা আবেদন প্রক্রিয়াটা একটু জটিল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে এক্ষেত্রে দুশ্চিন্তা করার কোন কারণ নেই এজেন্সিতে গিয়ে সঠিক তথ্য দিয়ে সুন্দরভাবে যদি। অ্যাপ্লিকেশন করতে পারেন সে ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১৫ দিনের মধ্যেই আপনি বাহারাইন নিজের ভিসা সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে মাথায় রাখতে হবে বাহরাইন ভিজিট ভিসা সম্পর্কে এখনো মানুষ সচেতন না হওয়ার কারণে দালাল চক্রগুলো এর মাধ্যম গুলোতে ফাঁদ পেতে বসে থাকে। তাই প্রতারিত না হয়ে সচেতনভাবে কাজ করার চেষ্টা করবেন।

বাহরাইন টু ঢাকা বিমান ভাড়া কত-বাহরাইন বিমান কবে চালু হবে সেখানে

বাহরাইন ভিজিট ভিসা নিয়ে প্রশ্ন এবং উত্তর

বাহারাইন ভিজিট ভিসার দাম কত?

বাহরাইন ভিজিট ভিসার দাম দেড় লক্ষ টাকা থেকে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। তাছাড়াও আপনি বাহারাইনে কতদিন পর্যন্ত অবস্থান করবেন সেটার উপর বাহরাইনের খরচ পড়বে।

বাহরাইনে ভিজিট ভিসাই কতদিন থাকা যায়?

বাহরাইনে ভিজিট ভিসায় সর্বোচ্চ তিন মাস পর্যন্ত অবস্থান করতে পারবেন। পরবর্তীতে যদি আপনার থাকার প্রয়োজন পড়ে তাহলে সেখানে অবস্থিত বাংলাদেশী দূতাবাসের মাধ্যমে যোগাযোগ করে ভিজিট ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

বারাইনে ভিজিট ভিসায় কি কাজ করা যায়?

বাহারাইনে ভিজিট ভিসায় গিয়ে কাজ করার নিয়ম নাই। তবে আপনি যদি সেখানে গিয়ে কাজ করেন তাহলে কোন ধরনের সমস্যা হবে না। তবে আপনি যদি সেখানে থেকে যাওয়ার চিন্তা-ভাবনা করেন তাহলে কিন্তু সমস্যা হবে।

বাহারাইনে ভিজিট ভিসাতে কি কি করতে পারবেন?

বাহরাইনে ভিজিট ভিসায় আপনি সেখানে ঘোরাফেরা করতে পারবেন। কিছুদিনের জন্য কাজও করতে পারবেন সেই সাথে আপনি বাহরাইনে বিভিন্ন বিজনেস প্ল্যান করার জন্য মিটিং করার সুযোগ করে নিতে পারবেন।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *