সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার -সিঙ্গাপুর ট্রেনিং খরচ কত

সিঙ্গাপুর যেতে কত বছর বয়স লাগে
সিঙ্গাপুর যেতে কত বছর বয়স লাগে

প্রিয় পাঠক আশা করি ভালো আছেন, পৃথিবীর যে কোন প্রান্তের যেকোনো দেশে যেতে হলে অবশ্যই ট্রেনিংয়ের প্রয়োজন হয়। সিঙ্গাপুরের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। সিঙ্গাপুর যেতে হলেও অবশ্যই ট্রেনিংয়ের প্রয়োজন রয়েছে। ট্রেনিং না করে কখনোই একজন কর্মী বিদেশ যেতে পারে না।

কারণ ট্রেনিং না করে যদি বিদেশ যা সিঙ্গাপুরয় তাহলে সেখানে সে দক্ষ ভাবে কোন কাজ করতে পারেনা বিদেশি কোম্পানি তাদেরকে ছাটাই করে দেয়। যার কারণে ট্রেনিং সম্পর্কে জানা আমাদের জন্য অত্যন্ত জরুরি। আজকে আমরা সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার সম্পর্কে বিস্তারিত জানব। তাহলে আসুন শুরু করা যাক।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং করার জন্য বাংলাদেশে অনেক ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। এ সকল জায়গা থেকে ট্রেনিং করে সিঙ্গাপুর গিয়ে অনেক কর্মী নিজের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছেন। সিঙ্গাপুর যেতে হলে অবশ্যই ট্রেনিং করার প্রয়োজন রয়েছে। সিঙ্গাপুরে কাজ করার জন্য বেশ কিছু ট্রেডের উপর ট্রেনিং করতে হয়।

সিঙ্গাপুরে অনেক রকম কাজের সুযোগ রয়েছে বাঙ্গালীদের জন্য। এ সকল জায়গায় কাজ করার জন্য অবশ্যই পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকতে হয়। যার কারণে বাংলাদেশ থেকে ট্রেনিং করে সেখানে যাওয়া বিশেষভাবে প্রয়োজন । বাংলাদেশে অনেক ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যেগুলো সিঙ্গাপুরের ট্রেড কাজের জন্য ট্রেনিং করিয়ে থাকে।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার কত টাকা লাগে

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং খরচ ৩০ হাজার টাকা। সিঙ্গাপুরের ট্রেনিং করার জন্য যে কোন গ্রেড এর ওপর সর্বোচ্চ ত্রিশ হাজার টাকার মধ্যেই ট্রেনিং করা যাবে। যদিও কিছু কিছু ট্রেড এর ওপর টাকা কিছুটা কম লাগতে পারে। কিন্তু অনেক রয়েছে যেগুলোর উপর ট্রেনিং করার জন্য ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত লাগবে।

এছাড়াও ছয় মাস বা এক বছর মেয়াদে সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারে গিয়ে যদি আপনি নিজস্ব অতিরিক্ত টাকা খরচ করেন তাহলে সেটা আপনার ব্যাপার। তবে সাধারণভাবে ৩০ হাজার টাকার মধ্যে যেকোনো গ্রেডে ট্রেনিং করা সম্ভব। এবং ট্রেনিং এবং বিদেশ যাওয়া খরচ সহ যেকোনো জায়গায় ৬ থেকে ৭ লক্ষ টাকার মধ্যে নিতে পারে।

আরো পড়ুনঃ  সিঙ্গাপুর ওয়েল্ডিং কাজের ভিসা-সিঙ্গাপুর ওয়েল্ডিং কাজের বেতন

সিঙ্গাপুর সরকারি ট্রেনিং সেন্টার

সিঙ্গাপুরে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন কাজের উপর সরকারিভাবে টিটিসি কেন্দ্রগুলোতে কাজের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে এই সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে যে কোন ব্যক্তি সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ নিতে পারবে। বাংলাদেশে প্রায়ই প্রত্যেকটি বিভাগীয় পর্যায়গুলোতেই টিটিসি কেন্দ্র রয়েছে যেখানে ভাষা শিক্ষা সহ সিঙ্গাপুর ট্রেনিং এবং অন্যান্য দেশের কাজের ট্রেনিং দেওয়া হয়।

তাছাড়াও বাংলাদেশের অন্যান্য বেসরকারি ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যেখান থেকে আপনারা ট্রেনিং নিতে পারবেন ট্রেনিং নেওয়ার পরে সরকারিভাবে আবেদন করতে পারবেন সরকারিভাবে আবেদন করার জন্য বিএনপি অথবা বুয়েসেল এর মাধ্যমে সিঙ্গাপুর কাজের ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। বোয়েসেলের মাধ্যমেও নির্ধারিত যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান রয়েছে সেই সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেউ বিদেশ যাওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  অস্ট্রেলিয়া স্পন্সর ভিসা-অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার উপায়

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার ঢাকা

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার বাংলাদেশের অন্যান্য অঞ্চলের থেকে ঢাকায় উন্নতমানের ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। ঢাকায় সরকারি এবং বেসরকারিভাবে সিঙ্গাপুরের ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। তাই আপনারা যারা ঢাকার মধ্যে সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার খুঁজছেন তারা গাজীপুর, সাভার, আশুলিয়া এসব অঞ্চলগুলোতে উন্নত মানের ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে এবং বিশ্বস্ত এ সমস্ত ট্রেনিং সেন্টারের মাধ্যমে সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য উন্নত মানের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবেন।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং ফি কত

ট্রেনিং খরচ সহ সিঙ্গাপুর যেতে সর্বমোট ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা খরচ হবে। তবে শুধু ট্রেনিং এর ক্ষেত্রে বেশি টাকা খরচ হয় না। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম টাকা নিলেও ১০ থেকে ২০ হাজার টাকার মধ্যেই সিঙ্গাপুর নির্দিষ্ট ট্রেড এর জন্য ট্রেনিং করা সম্ভব। এছাড়াও সিঙ্গাপুরে যাওয়ার জন্য সরকারিভাবে ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। যেখানে অল্প খরচে ট্রেনিং করতে পারবেন।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং করতে কত দিন সময় লাগে

সিঙ্গাপুর ট্রেনিংয়ের জন্য  তিন মাসের মত সময় লাগে। সিঙ্গাপুর ট্রেনিং করার জন্য বিভিন্ন ট্রেড এর উপর বিভিন্ন দিন সময় লাগে। তবে তিন মাসের মধ্যে সকল ট্রেনিং সম্পন্ন করা যায়। কিছু ট্রেনিং আছে যেগুলো দুই মাসের মধ্যেই সম্পূর্ণ হয়ে যায়।

আরো পড়ুনঃ  সিঙ্গাপুর কাজের বেতন কত-সিঙ্গাপুর বেতন তালিকা

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং করতে কতদিন সময় লাগে এ বিষয়ে অনেকজন প্রশ্ন করে থাকে। শুধুমাত্র ট্রেনিং সেন্টারে ভর্তি হয় কোন ট্রেনিং না করে শুধু সার্টিফিকেট নিয়ে বিদেশ চলে যায়। যেটি একেবারেই উচিত নয়। সিঙ্গাপুর যেতে হলে অবশ্যই ট্রেনিং করা প্রয়োজন।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার বাংলাদেশ

সিঙ্গাপুরে কাজের জন্য যত শ্রমিক নেয় তার অধিকাংশই বাংলাদেশ থেকে। যার কারণে বাংলাদেশের অনেক সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার গড়ে উঠেছে। এ সকল ট্রেনিং সেন্টারে সিঙ্গাপুর কাজের নানা ধরনের ট্রেনিং দেওয়া হয়। আলাদা আলাদা ট্রেডের ওপর আলাদা আলাদা ভাবে ট্রেনিং করানো হয় এসব সেন্টারে।

আরো পড়ুনঃ  ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৩ আবেদন, ইতালি স্পন্সর ভিসা কি

তবে বাংলাদেশে গড়ে ওঠা সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার গুলো একটু অনুন্নত। এখানে অনেক স্টুডেন্টকে ভর্তি করানো হয় কিন্তু কোন ধরনের ট্রেনিং না করে শুধু সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। যদিও অনেক ট্রেনিং সেন্টার আছে যেখানে নিয়মিত ট্রেনিং করার মাধ্যমে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশে অনেকগুলো সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে। যেখান থেকে ট্রেনিং করে আপনি সিঙ্গাপুর যেতে পারবেন। সিঙ্গাপুর ট্রেনিং নিয়ে বাংলাদেশে অবস্থিত কিছু ট্রেনিং সেন্টারের নাম নিচে দেওয়া হল:

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার তালিকা

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার গাজীপুর

বাংলাদেশের যে সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার গুলো রয়েছে সেগুলোর মধ্যে অন্যরকম একটি ট্রেনিং সেন্টার হল গাজীপুরে। গাজীপুর ট্রেনিং সেন্টারে অনেক স্বচ্ছ এবং সুন্দরভাবে ট্রেনিং করানো হয়। এখানে মোটামুটি সকল ট্রেনের উপরে ট্রেনিং করানো হয়। গাজীপুরের আশেপাশের মানুষগুলো বেশিরভাগই এখান থেকে ট্রেনিং করে থাকে।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার আশুলিয়া

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার আশুলিয়া সম্পর্কে তেমন বলার কিছু নেই। এ ট্রেনিং সেন্টার অনেক আগের। এখানে অনেক কর্মে ট্রেনিং নিয়ে বিদেশে গিয়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছে। যদিও এখানে ভর্তি ফি কিছুটা বেশি। এর পরেও এখানে অনেক সুন্দর স্বচ্ছতা রয়েছে।

আশুলিয়া ট্রেনিং সেন্টারে তিন মাস ,ছয় মাস, এক বছর মেয়াদী ট্রেনিং করানো হয় । এখানে ট্রেনিং করতে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা লাগে। ট্রেনিং করার জন্য বেশ সুশৃংখল ট্রেইনার রয়েছে। যারা সিঙ্গাপুর ভিসার জন্য যে কোন বিষয়ের ওপর খুবই সুন্দরভাবে ট্রেনিং করিয়ে থাকে। বাংলাদেশের প্রাচীন ট্রেনিং সেন্টার গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো আশুলিয়া ট্রেনিং সেন্টার।

আরো পড়ুনঃ  বাহরাইন ভিসা চেক করার নিয়ম ( এক ক্লিকেই )

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার সাভার

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার সাভার বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য ট্রেনিং সেন্টার গুলোর মধ্যে অন্যতম। এখানে ট্রেনিং করে হাজার হাজার বাঙালি সিঙ্গাপুর গিয়ে কাজ করছে। এখানে সকল প্রকার ট্রেনের উপর ট্রেনিং করানো হয়। অতিরিক্ত ঝামেলা ছাড়াই সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার সাভার থেকে ট্রেনিং করে সিঙ্গাপুর যেকোনো ভিসায় যেতে পারবেন।

সাভারে অবস্থিত সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার মানুষ জনের কাছে বেশ জনপ্রিয়। যার কারনে অনেক দূর থেকে এখানে মানুষ ট্রেনিং করতে আসে। ট্রেনিং করা অবস্থায় অনেকে পাশাপাশি অন্য কোন কাজও করতে পারে। যা শ্রমিকদের জন্য অনেক বড় একটি প্লাস পয়েন্ট।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারে কিভাবে কাজ করে

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারে মূলত যে কোন একটি বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আপনি সিঙ্গাপুরে গিয়ে যেকোনো একটি কর্মের উপর থাকতে পারবেন। আপনার যদি কোন প্রশিক্ষণ না থাকে তাহলে সেখানে গিয়ে কোন কাজ পাবেন না। এছাড়া যে কোন একটি কর্মের ওপরে পুরোপুরি দক্ষ হয়ে থাকলে সিঙ্গাপুরে এস পাস ভিসা পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ  কাতারে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২৩, কাতারে ইমাম নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারে অনেকেই ভর্তি হয় কিন্তু প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণগুলো নেয় না। প্রয়োজনে প্রশিক্ষণগুলো না নেওয়ার কারণে সিঙ্গাপুরের সরাসরি কাজ করতে গিয়ে তারা নানারকম বাধার সম্মুখীন হয়। তখন তারা বুঝতে পারে প্রশিক্ষণ নেওয়াটা কত জরুরী ছিল। এ ভুলটি কিছু মানুষ করে থাকে। এ সম্পর্কে সবাইকে সচেতন হতে হবে। সিঙ্গাপুর যাবার আগে অবশ্যই আপনাকে ট্রেনিং সেন্টারে প্রশিক্ষণ নিয়ে সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে এর পরে যেতে হবে।

সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টার কোথায়

বাংলাদেশের বিভাগীয় পর্যায়ে গুলোতে সিঙ্গাপুর যাওয়ার ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে এ সমস্ত ট্রেনিং সেন্টার গুলো থেকে ট্রেনিং নিতে পারবেন তাছাড়া সরকারিভাবে যদি আপনারা ট্রেনিং নিতে চান তাহলে বাংলাদেশের বিভাগীয় পর্যায়ে টিটিসি কেন্দ্র রয়েছে  এই সমস্ত টিটিসি কেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে সিঙ্গাপুর ট্রেনিং নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  কুয়েত ভিসা বন্ধ না খোলা-কুয়েত ভিসা নিউজ

সিঙ্গাপুর স্কিল ট্রেনিং খরচ কত

সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য স্কিল ডেভলপ করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ নেওয়া লাগে এক্ষেত্রে ঐ সমস্ত স্কিল ট্রেনিং সেন্টারগুলোতে খরচ পড়বে ২৫ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৩০ হাজার অথবা ৩৫ হাজার টাকা। এটি আসলে নির্ভর করে আপনি কি ধরনের কাজ শিখবেন এবং কতদিন পর্যন্ত সময় নিবেন সেটার উপর পরবর্তীতে পরীক্ষার ভিত্তিতেই সিঙ্গাপুরের ভিসার জন্য আবেদন করতে হয়।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *