সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা-ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা
সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা

বাংলাদেশীদের মধ্যে সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রবল, সিঙ্গাপুরের নানা রকম কাজের ভিসা পাওয়া যায় । এসব ভিসার মধ্যে সবচেয়ে আগ্রহ বেশি সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায়। কারণ সিঙ্গাপুরে যে কাজগুলো রয়েছে সেগুলোর মধ্যে সবথেকে আরামদায়ক হলো সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা। তাই আজকে আপনাদেরকে এই কনটেন্টের মাধ্যমে আমরা সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা প্রসেস সম্পর্কে সম্পূর্ণ বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব।

আজকের এই কনটেন্ট এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার জন্য কোন কোন ডকুমেন্টসের প্রয়োজন হয়। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার জন্য সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন বয়সসীমা কত। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় বেতন কেমন হয়, কোন মাধ্যমগুলোতে বেতন বাড়ানো হয় এবং কিভাবে কাজ করলে ওভারটাইম পাওয়া যায়। এছাড়াও জানতে পারবেন সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় গিয়ে সেখানে কোন নিয়মে ড্রাইভিং করলে সব থেকে বেশি সুবিধা ড্রাইভিং করার সর্বোচ্চ গতিসীমা কত।

যারা সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং যেতে চান তাদের জন্য এই কন্টেন্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই সম্পূর্ণ পড়লে আপনি ড্রাইভিং ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। যা আপনার ড্রাইভিং অভিজ্ঞতাকে আরো সমৃদ্ধ করবেন। তাই আসুন দেরি না করে শুরু করা যাক।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসাতে কেন যাবেন

অন্যান্য দেশের তুলনায় সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসাতে বেতন বেশি এবং সুযোগ-সুবিধা বেশি থাকে তাই অনেকেই সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভবিষ্যতে যাওয়ার জন্য বেশি আগ্রহ প্রকাশ করে। সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসা অনেক রকম সুযোগ সুবিধা রয়েছে যেগুলো অন্য দেশে পাওয়া যায় না।

সিঙ্গাপুরের যে কাজগুলো রয়েছে সেগুলোর মধ্যে সবচাইতে বেশি চাহিদা হল সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা। কেননা হোটেল বা বাসা বাড়ি কাজের চেয়ে ড্রাইভিং কাজটি অনেক সুবিধা জনক। যার কারণে সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসা তে সব থেকে বেশি চাহিদা থাকে।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার দাম কত

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার দাম পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকার মতো। তবে সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে দাম কিছুটা কম বেশি হতে পারে। পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকার মধ্যে আপনি সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পেয়ে যাবেন। তবে অবশ্যই প্রতারক চক্র থেকে সাবধান থাকতে হবে। তাছাড়া বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি এজেন্সি গুলোর মাধ্যমে আপনারা রিসেন্ট সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা সংক্রান্ত তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা অল্প টাকার দেয়ার জন্য অনেক প্রতারক চক্র ভাব পেতে থাকে। যারা অল্প টাকায় সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা দেওয়ার চুক্তি করে এবং অনেক বাঙালিকে প্রতারণার শিকার করে। এভাবে অনেক বাঙালির প্রতারণার শিকার হয়ে সিঙ্গাপুর থেকে ফেরত চলে আসে। তাই অবশ্যই সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসা পেতে হলে দালাল ও প্রতরক চক্র থেকে সাবধান থাকতে হবে।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার বেতন বর্তমানে মাসিক ৭০ থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। শুরুর দিকে বেতন কিছুটা কম থাকলেও অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে ধীরে ধীরে বেতন কাঠামো বাড়তে থাকে। মোটামুটি শুরুর দিকে সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা বেতন ৭০ হাজার টাকার মতো থাকলেও পরবর্তীতে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়।

অনেকেই দেশ থেকে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ না নিয়ে সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় চলে যায়। তাদের জন্য বেতন একেবারেই কম। এরকম ব্যক্তিদের মধ্যে অনেকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। কেননা সিঙ্গাপুর শহরটির অত্যন্ত নিরাপদ এবং সুশৃংখল। সেখানে নিয়ম মেনে গাড়ি ড্রাইভিং করতে হয়।

আরো পড়ুনঃ  সৌদি আরব কোন ভিসা ভালো ২০২৩ (বেশি বেতন)

কেউ যদি অভিজ্ঞতা ছাড়া সেখানে গাড়ি ড্রাইভিং করতে চায় তাহলে তাকে জরিমানার আওতায় আনা হয়। তাই দেশ থেকে প্রথমে প্রশিক্ষণ নিয়ে তারপর সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং পেশায় আবেদন করতে হবে। আর একজন অভিজ্ঞ ড্রাইভার এর বেতন সর্বোচ্চ এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়। তবে অনভিজ্ঞ অবস্থায় বেতন কিছুটা কম হতে পারে।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং এ গতিসীমা কত

সিঙ্গাপুর এন্ড ড্রাইভিং করার জন্য সর্বোচ্চ গতি সীমা ৮০ থেকে ৯০ কিলোমিটার। তবে অঞ্চল ভেদে এবং স্থান ভেদে গাড়ির গতিসীমা নির্ধারণ করা থাকে। স্কুল বা শপিংমল যে স্থানগুলোতে রয়েছে সেখানে গতিসীমা সর্বোচ্চ ৪০। এছাড়াও বেশ কিছু অঞ্চল ভেদে গাড়ির গতিসীমা সর্বোচ্চ ৫০।

সিঙ্গাপুর শহরটি অত্যন্ত উন্নত একটি শহর। যে উন্নত দেশগুলো রয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম । সিঙ্গাপুরে নিয়ম কানুনের উপর বেশ গুরুত্ব দেয়া হয় । তাই এখানে গাড়ির গতিশীমার উপরে গাড়ি না চালানোই সব থেকে ভালো। কারণ সিঙ্গাপুরের রাস্তায় অনেক ক্যামেরা লাগানো থাকে। গাড়ি গতি সীমা বেশি হলে তৎক্ষণাৎ আইনের আওতায় নিয়ে এসে শাস্তি দেওয়া হয়।  তাই সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় গিয়ে সেখানে অতি রিক্ত গতিতে গাড়ি না চালানোই ভালো।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা বয়স কত

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা আবেদনের বয়স ১৮ থেকে ৫০ বছর। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং বিষয়ে আবেদন করতে হলে অবশ্যই ১৮ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে বয়স হতে হবে। এর কম বেশি বয়স হলে কোনভাবেই আবেদন করতে পারবে না। তবে সিঙ্গাপুরের বেশিরভাগ সময় অল্প বয়সের ড্রাইভারদের গুরুত্ব দেওয়া হয়।

আরো পড়ুনঃ  গ্রীস কৃষি ভিসা ২০২৩ আবেদন ফ্রম

সিঙ্গাপুর এন্ড ড্রাইভিং ভিসার বয়স সম্পর্কে বিভিন্ন জন বিভিন্ন রকম মতামত দেয়। তবে ন্যূনতম ১৮ বছর থেকে শুরু করে 50 বছর পর্যন্ত সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসায় আবেদন করা যায়। ৫০ বছরের অধিক বাঙ্গালীদের কে সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসার জন্য গ্রহণযোগ্যতা দেওয়া হয় না। তাই সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসায়  আবেদন করতে হলে অবশ্যই এই বয়সের মধ্যে আবেদন করতে হবে।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং বিষয়ে প্রয়োজনে কাগজপত্র

  • বৈধ পাসপোর্ট এর পাশাপাশি দুইটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে
  • পাসপোর্ট এর মেয়াদ কমপক্ষে এক বছর থাকতে হবে
  • ড্রাইভিং ভিসা পেতে হলে অবশ্যই বি আর টি সি লাইসেন্স থাকতে হবে।
  • শুধু লাইসেন্স থাকলে হবে না দক্ষতা ও ভালো থাকতে হবে
  • পিতা-মাতা এন আই ডি কার্ড  কার্ড ও নিজস্ব আইডি কার্ড ফটোকপি লাগবে
  • মেডিকেল রিপোর্ট অফ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট লাগবে

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পাওয়ার জন্য মূলত উপরে ডকুমেন্টস গুলো সব থেকে বেশি প্রয়োজন। এছাড়া ও ছোটখাটো কিছু ডকুমেন্টস প্রয়োজন হতে পারে যেগুলো আপনারা দূতাবাস থেকে জেনে নিতে পারবেন। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় কোন নকল ডকুমেন্টস দিয়ে আবেদন করার চেষ্টা করবেন না।

 

সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং করার জন্য কোন ধরনের লাইসেন্স প্রয়োজন

সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসার জন্য অবশ্যই বাংলাদেশ সরকারি বি আর টিসি থেকে ভি আই পি লাইসেন্স নিতে হবে। ভি আই পি লাইসেন্স ছাড়া সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং পেশায় আবেদন করা যায় না। সিঙ্গাপুরে ড্রাইভিং ভিসায় খুব ভালো দক্ষতা থাকতে হয়।

অনেকেই বলে থাকে সিঙ্গাপুরে যেকোনো ধরনের লাইসেন্সই আবেদন করা যায়। বিষয়টি একেবারে সত্য নয়। সিঙ্গাপুরে ড্রাইভিং পেশা পাওয়াটা এতটা সহজ নয়। ভিআইপি ড্রাইভিং লাইসেন্স এর পাশাপাশি থাকতে হবে খুব ভালো দক্ষতা। যদি ড্রাইভিং এর দক্ষ না হয়ে থাকেন তাহলে সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং ভিসা পাবেন না। অনেকেই হালকা লাইসেন্স দিয়ে সিঙ্গাপুর ভিসা আবেদন করে থাকেন। পরবর্তীতে যাদের ভিসা বাতিল হয়ে যায়। তাই ভিসা আবেদন করার জন্য অবশ্যই ভি আই পি লাইসেন্স ব্যবহার করবেন।

আরো পড়ুনঃ  রোমানিয়া যেতে কত টাকা লাগে ২০২৩-রোমানিয়া যেতে কত বয়স লাগে

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসার জন্য লাইসেন্সের পাশাপাশি দক্ষতার ব্যাপক প্রয়োজন। দক্ষতা ছাড়া আবেদন করা একেবারে উচিত নয়। কারণ যদি দক্ষতা না থাকে তাহলে সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং বিষয় কি সেখানে একেবারে স্বল্প মূল্যে বেতন পাবেন। তাই দেশ থেকে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ দক্ষতা অর্জন করে তারপর সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসায় যাওয়া উচিত।

সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা সতর্কতা

আমরা অনেকেই মনে করেছি সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পাওয়াটা অনেক সহজ। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা নিয়ে সেখানে অনেক আরামে কাজ করে অধিক টাকা ইনকাম করতে পারবা। অনেকের এই ধারণাটাও সম্পূর্ণ ভুল। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পাওয়াটা এতটাও সহজ নয়। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পেতে হলে অবশ্যই ভিআইপি লাইসেন্স থাকতে হয়। তার পাশাপাশি থাকতে হয় বিশেষ দক্ষতা।

আরো পড়ুনঃ  আমেরিকা ডিবি লটারি ২০২৪| আমেরিকা ডিবি লটারি আবেদন ফরম

অনেকেই কোন দক্ষতা এবং লাইসেন্স ছাড়াই সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পাওয়ার জন্য অনুপ্রাণিত করে। কিন্তু এরা হলো প্রতারক চক্র। এ ধরনের চক্রের পাল্লায় পড়লে আপনার অনেক ক্ষতি হবে। এ ধরনের চক্র আপনাকে অনেক বড় বড় লোভ দেখিয়ে আপনার থেকে টাকা আত্মসাৎ করে নেবে। তাই এ ধরনের প্রতারকের কাছ থেকে অবশ্যই দূরে থাকতে হবে।

এছাড়া  সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা কাজের জন্য বেশি কিছু ডকুমেন্টস প্রয়োজন হয়। এসকল ডকুমেন্টস এর মধ্যে যদি কোন ডকুমেন্টস বাতিল বলে গণ্য হয় তাহলে আপনি সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পাবেন না। সিঙ্গাপুর ড্রাইভিং ভিসা পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে প্রতিটি ডকুমেন্টস সঠিক দিতে হবে। এর পাশাপাশি আপনাকে শারীরিকভাবে ফিট থাকতে হবে।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *