সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে ২০২৩ ( সকল ভিসা খরচ )

সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে অনেক বেশি মানুষই জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন। সিঙ্গাপুর যেতে খরচ হয়ে থাকে প্রায়ই ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা। কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনেকেই ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকা খরচ করে বা তারও অধিক খরচ করে সিঙ্গাপুরে কাজ করার জন্য যেয়ে থাকেন। এত বেশি টাকা খরচ হয় এর পেছনের কারণ হলো এরা দালাল এর মাধ্যমে সিঙ্গাপুরে যান।

সিঙ্গাপুর একটি উন্নত রাষ্ট্র যে কারণে এই দেশে অনেকেই যেতে আগ্রহী হয়ে থাকেন। কেননা আমরা সকলেই জানি যে সিঙ্গাপুরে কাজের মান অনেক ভালো এবং জীবন যাত্রার মান ভালো সে কারণে এই দেশে অন্যান্য দেশ থেকে কাজের জন্য মানুষ যেতে আগ্রহী হয়ে থাকেন। বাংলাদেশ ও তার ব্যতিক্রম নয়। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সিঙ্গাপুরে শ্রমিকরা কাজ করার জন্য আসে।

বাংলাদেশ থেকেও বছরে প্রচুর পরিমাণ মানুষ সিঙ্গাপুরে যেয়ে থাকেন। সিঙ্গাপুরে শ্রমিকদের কাজের বেতন ও অনেক বেশি সে কারণেও মূলত অন্যান্য দেশ থেকে এই দেশে মানুষ কাজ করার জন্য এসে থাকেন। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন সিঙ্গাপুরের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সম্পর্কে কিছু তথ্য।

সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে

সিঙ্গাপুর যেতে খরচ হয় মূলত ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা। যা আমরা ইতিমধ্যে উপরে আলোচনা করেছি। তাছাড়াও সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য খরচ নির্ধারিত হয় আসলে কি ধরনের ভিসা নিয়ে সে সিঙ্গাপুরে যাবে। যদি সে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যেতে চাই তাহলে খরচ পড়বে পাঁচ লক্ষ টাকা থেকে ছয় লক্ষ টাকা। আর যদি টুরিস্ট ভিসা বা অন্যান্য ভিসা নিয়ে যেতে চাই তাহলে সেই অনুযায়ী খরচ নির্ধারিত হয়ে থাকে।

সিঙ্গাপুর সম্পর্কে বিস্তারিত নিচে আলোচনা করা হলো যা থেকে আপনারা সকলে উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ। সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে জানতে অনেক বেশি মানুষ আগ্রহী হয়ে থাকেন। সিঙ্গাপুর একটি উন্নত রাষ্ট্র এ রাষ্ট্রে অনেকেই অনেক কারণে অনেক দেশ থেকে এসে থাকেন। আমরা পর্যায়ক্রমে এখানে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার এবং ভিসা নিয়ে বিস্তারিত খরচ তুলে ধরেছি।

সিঙ্গাপুর ভিসা খরচ
সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা৩০০ ডলার
সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা৫ থেকে ৬ লক্ষ
সিঙ্গাপুর বিজনেস ভিসা৫ থেকে ১০ লক্ষ টাকা
সিঙ্গাপুর স্টুডেন্ট ভিসা৫ থেকে ৮ লক্ষ টাকা

বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার খরচ কত এই সম্পর্কে আপনারা অনেক সময় জানতে চান। কেননা আপনারা অনেকেই বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যেতে আগ্রহী যে কারণে মূলত এই সম্পর্কে জানার জন্য গুগলে অথবা অন্যান্য সাইটে খোঁজ করে থাকেন। আজকে আমরা এই কন্টেন্টে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার খরচ কত সে সম্পর্কে আলোচনা করব। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই সম্পর্কে।

বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার খরচ কত

বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য মোট খরচ হয়ে থাকে প্রায় পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকা। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে আরো বেশি টাকা খরচ হতে পারে। এজেন্সি বা কোম্পানি ভেদে টাকার পরিমাণ সামান্য কমবেশি হয়ে থাকে। তবে আপনারা যদি কোন দালাল এর মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে যেতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে প্রায় বাংলাদেশী মুদ্রায় ১০ লক্ষ থেকে ১২ লক্ষ টাকা বা তার অধিক। তাহলে আপনারা বুঝতেই পারছেন কেমন খরচ হতে পারে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার ক্ষেত্রে।

সম্পূর্ণ খরচ কিন্তু এই বিষয়গুলোর মধ্যে তুলে ধরা হয়েছে কেননা বিমান ভাড়া সহ হোটেল খরচ এবং আনুষঙ্গিক অন্যান্য খরচ সহ এই বিষয়গুলো ধরেই মূলত পাঁচ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে ৭ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। তবে আপনি যে এজেন্সিতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন অবশ্যই সে এজেন্সির প্যাকেজগুলো সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জেনে নিবেন।

আরো পড়ুনঃ  ইউরোপের কোন দেশে যাওয়া সহজ, যাওয়ার উপায়, খরচ

সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা খরচ কত

সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসার খরচ কত এই সম্পর্কে জানতে অনেকেই আগ্রহী হয়ে থাকেন। সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসার খরচ হয়ে থাকে মূলত ৩০০ ডলারের মত। আপনারা অনেকে রয়েছেন যারা ঘুরতে অনেক ভালবাসেন। যে কারণে আপনারা জানতে চান অনেক দেশ সম্পর্কে।

তেমনি আপনারা যারা সিঙ্গাপুরের টুরিস্ট ভিসা নিয়ে ঘুরতে যেতে চান তারা সকলেই জানতে চান সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসার খরচ সম্পর্কে। আমরা যেখানেই যাই না কেন সর্বপ্রথম খরচের বিষয়টি আমাদের নজরে আসে। কেননা খরচের ওপর নির্ভর করে আমাদের ঘোরার বিষয়টা। সিঙ্গাপুর অনেক সুন্দর একটি দেশ যে কারণে এখানে প্রতিবছর অনেক ভিজিটর এসে থাকেন।

সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা খরচ কত

সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সম্পর্কে জানতে অনেক বেশি মানুষ আগ্রহী হয়ে থাকেন। সিঙ্গাপুর ভিসার খরচ হয় প্রায় পাঁচ থেকে ছয় লক্ষ টাকা। চলুন জেনে আসি সিঙ্গাপুর ভিসা সম্পর্কে কিছু তথ্য। কেননা বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি মানুষ সিঙ্গাপুর যেতে থাকে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে।

সিঙ্গাপুরের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যাওয়ার কারণ হচ্ছে সেখানে জীবনযাত্রার মান উন্নত এবং যারা কাজ করেন তাদের পারিশ্রমিক ও বেশি। যে কারণে বাংলাদেশের মানুষ সিঙ্গাপুরে যেতে এবং ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। আশা করি আপনারা সকলে বুঝতে পেরেছেন।

আরো পড়ুনঃ  সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা-সিঙ্গাপুর কাজের ভিসা কত টাকা

সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে

সিঙ্গাপুর বিজনেস ভিসা খরচ কত

সিঙ্গাপুর বিজনেস ভিসা খরচ কত এই সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে থাকেন যারা বিজনেস করতে যেতে চান মূলত তারা। সিঙ্গাপুর বিজনেস ভিসা খরচ হয়ে থাকে প্রায় বাংলাদেশী মুদ্রায় পাঁচ থেকে দশ লক্ষ টাকা। বিজনেস ভিসার ক্ষেত্রে অনেকগুলো ডকুমেন্ট এর প্রয়োজন হয় এবং বেশি পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন হয়ে থাকে।

সিঙ্গাপুর একটি উন্নত রাষ্ট্র এখানে অনেকে অনেক দেশ থাকে অনেক রকম কাজের জন্য এসে থাকেন। কেউ এসে তাকে কাজ করার উদ্দেশ্যে। কেউ এসে থাকেন বিজনেস করার উদ্দেশ্যে। কেউ ঘুরবার জন্য এসে থাকেন। সিঙ্গাপুর একটি চমৎকার দেশ সবকিছু করার ক্ষেত্রে।

সিঙ্গাপুর স্টুডেন্ট ভিসা খরচ কত

সিঙ্গাপুর স্টুডেন্ট ভিসা খরচ হয় ৯ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে বেসরকারিভাবে কেউ যদি সিঙ্গাপুরে স্টুডেন্ট ভিসায় যেতে চায় তাহলে মিনিমাম ৫ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে ৯ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ করা লাগবে। বেসরকারিভাবে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন এজেন্সি বিভিন্ন ভাবে খরচ নির্ধারিত করে থাকে। তাই নির্ধারিতভাবে কোন এজেন্সিতেই ফিক্সড খরচ নির্ধারিত নাই। তাই যারা স্টুডেন্ট ভিসায় সরকারি মাধ্যমে ছাড়া যেতে চায় তাদের খরচ দ্বিগুণ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ  সিঙ্গাপুর এস পাস ভিসা-সিঙ্গাপুর এস পাস ভিসা বেতন কত

তবে যারা সরকারি খরচে সিঙ্গাপুর স্টুডেন্ট ভিসায় পড়াশোনা করার সুযোগ পায় তাদের ক্ষেত্রে কিন্তু সম্পূর্ণ প্রসেস ভিন্নরকম এক্ষেত্রে অনেক কিছু কম খরচের মধ্যেই সিঙ্গাপুরে স্টুডেন্ট ভিসায় পড়াশোনা করার সুযোগ পাওয়া যায়। তবে প্রথম অবস্থায় ইন্টারমিডিয়েট শেষ করেই সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল কলেজগুলোতে আবেদন করার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশী স্টুডেন্টদের জন্য। সিঙ্গাপুরের ইন্টারন্যাশনাল কলেজগুলোতে চান্স পাওয়ার পরেই সরকারি খরচেই পড়াশোনা করার সুযোগ রয়েছে।

সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা ফি কত

সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা ফি কত টাকা এই সম্পর্কে অনেকেই জানতে আগ্রহী। সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা ফি কত ধরা হয়ে থাকে প্রায় বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা। সিঙ্গাপুর টুরিস্ট ভিসা খরচ এর ক্ষেত্রে ৩০ ডলার এর কথা বলা হয়েছে। মূলত এখানে ৩৪০০ টাকার মতো আসে।

যদি আপনার লেটার অফ ইন্ট্রোডাকশন না থাকে তাহলে আপনার ফি দিতে হবে প্রায় সাড়ে চার হাজার থেকে 5000 টাকা। মূলত এটাই আমরা উপরে উল্লেখ করেছি। আর আমাদের সকলেরই জানা উচিত টুরিস্ট ভিসা ফি সম্পর্কে। কেননা আমরা যদি এই সম্পর্কে না জানি অন্যদের সাহায্য নিতে চাই বা দালালদের সাহায্য নিতে চাই তাহলে তারা আমাদের কাছ থেকে অনেক বেশি টাকা ও দাবি করতে পারে।

সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ফি কত

সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ফি সম্পর্কে অনেকেই জানতে চান। সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ফি ৩০০ ডলার। বাংলাদেশি টাকায় ৩৫০০ টাকার মত। কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রায় সাড়ে চার হাজার এর মত টাকা লাগে।

আরো পড়ুনঃ  গ্রিস ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2023 খরচ সহ বিস্তারিত

বেশি টাকাটা লাগে তার কারণ হলো তারা আপনাকে বেশ কয়েক রকম সাপোর্ট দেবে। যেমন, এয়ার টিকিটের বুকিং এর পেপার। হোটেল রিজার্ভেশন এর কপি এই সকল ডকুমেন্টগুলো প্রোভাইড করার জন্য এজেন্সি গুলো মূলত ৫০০০ টাকার কাছাকাছি টাকা নিয়ে থাকে।

সিঙ্গাপুর যাওয়ার খরচ নিয়ে সতর্কতা

সিঙ্গাপুরে যাওয়ার আগে অবশ্যই অনলাইন থেকে বিমান ভাড়া নতুন তালিকা অনুযায়ী দেখে তারপরেই যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন এবং সেই সাথে আপনি যেই এজেন্সির মাধ্যমে যাবেন সেই এজেন্সি কত টাকা বিমান ভাড়া এবং আনুষঙ্গিক অন্যান্য খরচ কত টাকা করে ধরছে সে বিষয়গুলো দেখে নিবেন পাশাপাশি অন্যান্য এজেন্সি গুলোতে কত টাকার মধ্যে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাচ্ছে এবং কি ধরনের কাজ দিচ্ছে সেই বিষয়গুলো অবশ্যই দেখে তারপরেই সিঙ্গাপুর যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিবেন।

আরো পড়ুনঃ  সুইজারল্যান্ড কাজের ভিসা ২০২৩(খরচ, আবেদন)

পরবর্তী আমাদের অন্যান্য দেশ সম্পর্কে কন্টেন করতে আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন এবং চোখ রাখুন সিঙ্গাপুরসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে কিভাবে যাওয়া যায় এবং কাজের ভিসা কিভাবে পাবেন এই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য। আজকে আমাদের মূলত আলোচনার বিষয় ছিল যেতে কত টাকা লাগে এবং সিঙ্গাপুর ওয়ার্ক পারমিট ভিসা এবং টুরিস্ট ভিসা খরচ কত এই সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য।

Usajobpoint একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে দেশ বিদেশের চাকরির খবর ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষার মাধ্যমে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।

1 thought on “সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে ২০২৩ ( সকল ভিসা খরচ )”

  1. সিংগাপুর অফিস বয় অথবা রিসুরট এর ভিসা প্রসেসিং করা জায় না কি বা ট্রেডিং এর মধ্যে আমার ছেলে এর জন্য আমার ছেলে এবার এইচএসসি ফাইনাল দিয়েছে যদি এরকম কোন সুযোগ থাকে তাহলে আপনি আমাকে একটু দয়া করে জানাইলে আমার ছেলে জন্য উপকার হইতে

    Reply

Leave a Comment

You cannot copy content of this page