ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার পর মাসিক হচ্ছে না

ইমারজেন্সি পিল মাসিক হওয়ার পিল না। ইমারজেন্সি পিল সেপন করা হয় অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ রোধ করার জন্য। সহবাস করার পরে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ইমার্জেন্সি পিল সেবন করতে হয়। তবে ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার ফলে মাসিকের তারিখ ৩ থেকে ১০ দিন পিছিয়ে যেতে পারে। ইমারজেন্সি পিল ১০০% নিরাপদ তা কিন্তু না। ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পরেও কিন্তু গর্ভধারণ হতে পারে। তবে ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার ফলে মাসিকের তারিখ আগে পরে হতে পারে।

বর্তমান সময়ে ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার মাত্র অনেক অংশে বেড়ে গিয়েছে তবে এই পিল ১০০% নিরাপদ না তবে প্রতি ১০০ জনে দুইজনা গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তাই এই পিল খাওয়ার কারণে যে নিরাপদে থাকবেন তা কিন্তু না এক্ষেত্রে অবশ্যই মাসিকের সময় এবং অন্যান্য বিষয়গুলো অবশ্যই মনে রাখতে হবে।

যদি দেখা যাচ্ছে ১০ দিন পার হওয়ার পরেও কোন ধরনের ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে না মাসিক হওয়ার এক্ষেত্রে অবশ্যই দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। যদি তিন থেকে দশ দিনের মধ্যেই মাসিক না হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে অথবা প্রেগনেন্সি টেস্ট করতে হবে।

নোরিক্স ১ খাওয়ার কতদিন পর মাসিক হয়

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পর মাসিক না হওয়ার কারণ

ইমার্জেন্সি পিল সেবনের পর মাসিক না হওয়ার বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে এক্ষেত্রে প্রতিবারই ইমারজেন্সি পিল খাওয়া হয় মূলত গর্ভধারণ রোধ করার জন্য। এই সতর্কতামূলক ইমারজেন্সি পিল এর প্যাকেটে লেখা থাকে যদি এই পিল কাজ না করে তাহলে গর্ভধারণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। যদি গর্ভধারণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তাহলে কিন্তু মাসিক বন্ধ হয়ে যাবে।

মাসিক হওয়ার তিন থেকে দশ দিন পর্যন্ত সময় পিছিয়ে যেতে পারে। তবে এই ক্ষেত্রে দেরিতে হলেও অনেক সময় মাসিক হতে পারে। তাছাড়া শারীরিক অন্যান্য সমস্যা থাকলে শরীরের রক্তের অভাব দেখা দিলে এই পীর সেবন করার ফলে মাসিক না হওয়ার সম্ভাবনা ও থাকতে পারে।

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার কারণে যদি মাসিকের তারিখ অনুযায়ী মাসিক না হয় তাহলে অবশ্যই দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে কেননা ইমারজেন্সি পিল নাও কাজ করতে পারে। এই কারণে মূলত মাসিক দেরিতে হতে পারে তাই অবশ্যই ডাক্তার পরামর্শ নিন।

যদি তিন থেকে দশ দিন পার হয়ে যায় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন এবং মাসিকের ডেট অনুযায়ী অপেক্ষা করতে থাকুন যদি নাই হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে তা না হলে কিন্তু গর্ভধারণ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকতে পারে।

ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার কত দিন পর মাসিক হয়

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পর মাসিক না হলে করণীয়

যদি ইমারজেন্সি পিল সেবন করার পরেও মাসিক না হয় তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। আপনাদের জেনে রাখা উচিত যে ইমারজেন্সি পিল খাওয়া হয় মূলত অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ রোধ করার জন্য এক্ষেত্রে মাসিক হওয়ার জন্য কিন্তু খাওয়া হয় না। ডেট অনুযায়ী মাসিক হবে। এক্ষেত্রে মাসিকের তিন দিন আগে অথবা তিন থেকে দশ দিন পরেও কিন্তু মাসিক হতে পারে। তাই অবশ্যই দশ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পরে যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মাসিক না হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী আয়রন ট্যাবলেট সেবন করুন এরপরও যদি মাসিক না হয় তাহলে অবশ্যই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করুন এক্ষেত্রে খুব সহজেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পরে কিন্তু নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা দেখা দেয় অথবা ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার ফলে সাইট ইফেক্ট হিসাবে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে এক্ষেত্রে মাথা ব্যথা, তলপেট ব্যথা সহ আরো অনেক ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে তাই অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

ফেমিকন পিলের কার্যকারিতা কত ঘন্টা

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পরে যদি মারাত্মকভাবে কোন সমস্যা দেখা দেয় তাহলে কিন্তু পরবর্তীতে ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার আগেই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে কেননা ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার ফলে শরীরে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে তাই অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ইমার্জেন্সি পিল খাওয়া সব থেকে ভালো।

পিল খাওয়ার পর রক্তপাত

যেকোনো পিল খাওয়ার পরেই যদি রক্তপাত হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। যদি মাসিকের তারিখ অনুযায়ী রক্তপাত হয় তাহলে সমস্যা নাই যদি মাসিকের তারিক অনুযায়ী না হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার পর ব্লিডিং

ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার পর যদি অতিরিক্ত ভাবে ব্লিডিং হয় তাহলে অবশ্যই দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে। কেননা ইমারজেন্সি পিল খাওয়ার ফলে সাইড ইফেক্ট দেখা দিতে পারে তাই অবশ্যই বেশি মাত্রায় যদি বিল্ডিং হতে থাকে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

Usajobpoint একটি বাংলা ব্লগিং প্লাটফর্ম। এখানে দেশ বিদেশের চাকরির খবর ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন জানা-অজানা তথ্য প্রকাশ করা হয়। বাংলা ভাষার মাধ্যমে সঠিক তথ্য পৌছে দেয়াই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।

Leave a Comment

You cannot copy content of this page