কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বেতন কত

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী

কাতারে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী কেন থাকে? বাংলাদেশের সেনাবাহিনীদের দ্বারা কাতার কি কাজ করায় এবং কত টাকায় বা বেতন দেয়, এ সকল বিষয় নিয়েই আমাদের এই কনটেন্ট টি সাজানো হয়েছে। এছাড়াও আমাদের এই কমেন্টের মাধ্যমে আপনি কাতারে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কেও আপডেট তথ্য জানতে পারবেন।

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কেন থাকে তা নিয়ে অনেকের মনে অনেক রকম প্রশ্ন। সত্যি কি কাতারে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী রয়েছে? নাকি নেই? তাহলে যারা বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর নামে কাতারে চাকরি করছে তারা আসলে কারা? এরকম নানারকম প্রশ্ন আমাদের মনের মধ্যে থাকে আজকে আমরা এই প্রশ্নগুলোর উত্তর জানার চেষ্টা করব।

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কেন

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কাজ করার উদ্দেশ্যে সেখানে যাই। যে সেনাবাহিনী গুলো বাংলাদেশ থেকে অবসরপ্রাপ্ত হয়ে বসে থাকে। তাদেরকে বিভিন্ন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি মাধ্যমে কাতার সরকার নানা রকম সরকারি খাতে নিযুক্ত করে। শুধুমাত্র অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী নয় বাংলাদেশ থেকে সরকারিভাবেও অনেক কর্মী নেয় কাতার সরকার। তবে সরকারিভাবে যে কর্মীগুলো নেওয়া হয় সেগুলো নির্দিষ্ট সময়ের জন্য।

বিশেষ করে যখন কোন একটি দেশে আকস্মিক কোনো ঘটনা সাময়িকভাবে কন্ট্রোল করার জন্য লোকবল প্রয়োজন হয় তখনই তারা সেনাবাহিনী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়। এবং বেশিরভাগ সময়ে বাংলাদেশ থেকে বিপুল পরিমাণে সেনাবাহিনী নিয়োগ দেয় কাতার সরকার।

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ

বাংলাদেশের সেনাবাহিনী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। বাংলাদেশ সামরিক বাহিনীর আধুনিকরণে অনেক অর্থের প্রয়োজন। যা বাংলাদেশ সরকার বহন করতে পারছেন না। যে কারণে সামরিক বাহিনীতে আধুনিক অস্ত্র বিদ্যমান নাই। এই সমস্যা সমাধান করতে আরব বিশ্বে সেনাবাহিনী মোতায়ন করেছে বাংলাদেশের সরকার। সেখান থেকে প্রচুর পরিমাণ অর্থ প্রদান করে থাকে। যা দিয়ে বাংলাদেশ সামরিক বাহিনীর বেশিরভাগ আধুনিক অস্ত্র ক্রয় করা সম্ভব। এই কারণে মূলত কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ দিচ্ছেন বাংলাদেশ সরকার।

আরো পড়ুনঃ  জাপান ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২৩-জাপান জব ভিসা ২০২৩

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বেতন কত

বাংলাদেশী সেনাবাহিনী গুলো কাতারে নিযুক্ত দেওয়া হয় সেগুলোর বেতন ২ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে চার লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। বেশিরভাগ সময়ে বাংলাদেশে অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী গুলোকে কাতারে বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়। এবং সেনাবাহিনী গুলো দেশেও যেই ক্যাটাগরিতে অবস্থান করেছিল সেটার উপর নির্ভর করে তার বেতন কাঠামো। তবে সাধারণভাবে একজন সেনাবাহিনীর বেতন পর্যন্ত হতে পারে কাতারে। তবে যে সেনাবাহিনী গুলো সরকারি ভাবে যায় তাদের বেতন এতটা বেশি হয় না। তারা দেশে ওভাবে যে বেতন পায় সেটার সাথে কিছু বোনাস বেতন পেয়ে থাকে। এবং তারা নির্দিষ্ট একটি সময়ের জন্য সেখানে অবস্থান করে।

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ চলছে কাতারে। আরব প্রদেশে সেনাবাহিনী পাঠানোর মূল লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর উন্নত করা। সেনাবাহিনী উত্তর প্রদেশে পাঠানো হলে সেখান থেকে বেশ অর্থ উপার্জন করা যায়। মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী দেশ কাতার। ২০২২ সাল থেকে কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়োগ দিয়ে থাকেন। বিভিন্ন দেশ থেকে কাতারে সেনাবাহিনীর নিয়োগ নিচ্ছেন কাতার সরকার। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  ইথিওপিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ | ইথিওপিয়া গার্মেন্টস ভিসা বেতন কত
কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
                                            কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী

কাতার সেনাবাহিনী নিয়োগ ২০২3

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো এখন পর্যন্ত কাতারে সেনাবাহিনী নিয়োগ শুরু হয়। তবে চলতি বছরের সেনাবাহিনী নেওয়ার কথা আছে কাতারে শীঘ্রই কাতারে সেনাবাহিনী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে। যারা কাতারের সেনাবাহিনী পদে চাকরি করতে চান তারা অবশ্যই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি রাখবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনি সর্বোচ্চ আপডেট রাখতে পারেন আপনার সেক্টর প্রধানের কাছ থেকে।

প্রতিবছরের কমবেশি কাতারে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী নিযুক্ত হয়। বিভিন্ন কাজের জন্য বাংলাদেশ থেকে কাতার সেনাবাহিনী নিয়ে থাকে। যদিও এ বছর এখনো সেনাবাহিনী নেওয়ার শুরু হয়নি। তবে আমরা আশা করছি খুব শীঘ্রই কাতারে বাংলাদেশের নিযুক্ত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আসবে। যারা কাতারে অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী হয়ে চাকরি করতে চান তারা আপডেট রাখার জন্য নিয়মিত চোখ রাখতে পারেন আমাদের ওয়েবসাইটে।

আরো পড়ুনঃ  আমেরিকা স্টুডেন্ট ভিসা ২০২৩ | আমেরিকা স্টুডেন্ট ভিসা খরচ

কাতার অবসরপ্রাপ্ত সেনা নিয়োগ

কাতারে শুধুমাত্র সরকারিভাবে যে সেনা নিয়োগ হয় তা নয় তারে অবসরপ্রাপ্ত সেনাগুলো নানা ধরনের কর্মক্ষেত্রে যোগদান করতে পারে। কাতার সরকার বাংলাদেশ থেকে অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীদের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি মাধ্যমে নিয়োগ করে থাকে। এবং বেশ ভালো মানের বেতন দেওয়া হয় কাতারে সকল অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীদের। সাধারণভাবে বাংলাদেশ অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনীদের ২ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে ৪ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হয়।

তবে কাতারে অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী নিয়োগের জন্য বেশ কিছু রিক্রুটমেন্ট রয়েছে। সকল রিকোয়ারমেন্ট গুলো সঠিকভাবে প্রদান করতে পারলে তবে কাতারে যেতে পারবেন। এছাড়াও আপনি সেনাবাহিনীর কোন পদে নিযুক্ত ছিলেন সেটার উপরে নির্ভর করবে কাতারে আপনার কর্মস্থল এবং বেতন ভাতা। যদিও কাতারে বাংলাদেশের যে সকল অবসর করত সেটা বাহিনী রয়েছে তারা বেশ ভালো ভালো সম্মানজনক জায়গাতে রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ  হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট নিয়োগ ২০২৩(নতুন সার্কুলার)

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কি কাজ করে

কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেয়ার নানা রকম কাজ করায়, বেশিরভাগ সেনাবাহিনীকে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে নিযুক্ত করা হয়। এছাড়াও অনেক সময় কাতারের নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে বেশ কিছু কর্মীকে নিয়োগ দেওয়া হয়। এছাড়া যে কোনো একেবারেই সাধারণ অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী ছিলেন তাদেরকে সাধারণ নিরাপত্তা কর্মী হিসেবে নেওয়া হয়। কাতারে বড় বড় তেল স্পিনিং খনিতে এসকল সেনাবাহিনীদের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এছাড়াও বিশেষ অনাকাঙ্ক্ষিত সময় গুলোতে কাতার সরকার জাতিসংঘ থেকে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী নিয়ে থাকে। এখন পর্যন্ত যতগুলো দেশ জাতিসংঘে সেনাবাহিনী পাঠায় তাদের মধ্যে সর্বোচ্চ তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ। এছাড়াও জাতিসংঘ সেনাবাহিনী মর্যাদায় বাংলাদেশের সেনাবাহিনীদের অতুলনীয় ভুমিকা রয়েছে।

কাতারে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কতদিন থাকে

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নির্দিষ্ট কোন দিন নির্ধারিত থাকে না। তবে যারা সরকারিভাবে অনাকাঙ্ক্ষিত সময়ের জন্য কিছু বিশেষ উদ্দেশ্যের জন্য কাতারে যায় তাদের জন্য সময়ের উল্লেখ থাকে। তাছাড়া তারা যে উদ্দেশ্যের জন্য কাতারে যাচ্ছেন সেই উদ্দেশ্যটি সফল না হওয়া পর্যন্ত তাদের কাতারে অবস্থান করতে হয়।

কাতার ভিসা সেন্টার বাংলাদেশ | কাতার ভিসা সার্ভিস

এছাড়াও যারা অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী কাতারে বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য যায় তারা দুই বছর অথবা তিন বছরের মেয়াদে কাতার গিয়ে থাকে। অবসরপ্রাপ্ত সেনাবাহিনী গুলো কাতারের যে কোন সরকারি অথবা বেসরকারি সংস্থাগুলোর সাথে কাজ শুরু করে। সর্বনিম্ন এক বছর থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর পর্যন্ত এই সকল সেনাবাহিনী কাজ করতে পারে কাতারে।

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *