রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ | রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা বেতন কত

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩
রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩
Contents show

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে আজকে আমরা আপনাদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করব। আজকের এই কনটেন্টে আপনারা রোমানিয়া সম্পর্কে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে পারবেন। যেমন, রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা, রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার বেতন কত, রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার আবেদন প্রক্রিয়া, রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা কিভাবে পাবেন, রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে ইত্যাদি সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ বিস্তারিত তথ্য।

রোমানিয়া দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের একটি রাষ্ট্র। রোমানিয়ার উত্তরে রয়েছে ইউক্রেন এবং পূর্ব দিকে রয়েছে মালদোভা। রোমানিয়ার চারেপাশে হাঙ্গেরি, সার্বিয়া, বুলগেরিয়া ইত্যাদি দেশ রয়েছে। রোমানিয়ার রাজধানীর নাম বুখারেস্ট। রোমানিয়া ৯২ হাজার বর্গমাইল। রোমানিয়া জনসংখ্যা বহুল একটি দেশ রোমানিয়ার ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশ। রোমানিয়ার জনসংখ্যা প্রায় ১৯ মিলিয়ন বা তার ওপরে রয়েছে। বর্তমান সময়ে রোমানিয়া উচ্চ মধ্য আয়ের দেশ।

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা

রোমানিয়ায় গার্মেন্টসে ভিসা নিয়ে অনেকেই বাংলাদেশ থেকে যেতে আগ্রহী। আজকের আমাদের এই কন্টেন্টে আপনারা জানতে পারবেন রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য। আপনি যদি গার্মেন্টস সেক্টরের কাজ জেনে থাকেন তাহলে আপনি রোমানিয়া গিয়ে প্রতি মাসে ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। রোমানিয়াতে বর্তমান সময়ে গার্মেন্টস ভিসায় গিয়ে অনেকেই ভালো পরিমান টাকা আয় করে থাকছেন।

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ এ অনেকেই বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করার জন্য রোমানিয়া যাবেন। বর্তমানে রোমানিয়াতে গার্মেন্ট সেক্টরে অনেক মানুষ নিয়ে থাকেন। করোনা কালীন সময়ে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পরে বর্তমান সময়ে আপনি রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা বা বিভিন্ন ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে যেতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই নিউজ আজকের ২০২৩ | দুবাই আজকের খবর

২০২৩ সালে রোমানিয়াতে অনেক বেশি পরিমাণ শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকছেন রোমানিয়া সরকার বা কোম্পানিগুলো। যে কারণে অনেকের বাংলাদেশ থেকে রোমানিয়া যাচ্ছেন। তবে আপনি যদি রোমানিয়ায় গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে রোমানিয়ায় গার্মেন্ট সেক্টরে কাজ করেন তাহলে আপনি বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা পেয়ে যাবেন। রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

রোমানিয়া গার্মেন্টস কাজের বেতন কত

রোমানিয়ায় গার্মেন্টস কাজের বেতন প্রায়ই ৩০০ থেকে ৬০০ ইউরো পর্যন্ত হয়ে থাকে। একজন শ্রমিক রোমানিয়া গার্মেন্টস সেক্টরে কাজ করে প্রতিমাসে ৩০০ থেকে ৬০০ ইউরো পর্যন্ত আয় করতে পারেন। বিভিন্ন ক্যাটাগরির উপর নির্ভর করে বেতন ভিন্ন রকম হয়ে থাকেন। ৩০০ থেকে ৬০০ ইউরো যদি বাংলা টাকায় কনভার্ট করা হয় তাহলে বাংলাদেশের মধ্যেই দাঁড়ায় প্রায় ৩০ হাজার থেকে ৬০ হাজার। তাহলে আমরা বুঝতেই পারছি যে রোমানের গার্মেন্টস কাজের বেতন কত।

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা কিভাবে পাবেন

রোমানিয়ায় গার্মেন্টস ভিসা আপনারা খুব সহজেই পেয়ে যেতে পারেন। বাংলাদেশের বিভিন্ন এজেন্সি রয়েছে এবং আপনি যদি চান ঢাকা মিরপুরে যে বুয়েসেল রয়েছে তার মাধ্যমে আপনারা রোমানিয়ার গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে খুব সহজে রোমানিয়া যেতে পারবেন। রোমানিয়া যাওয়ার জন্য আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টগুলো ছাড়া আপনি রোমানিয়া যেতে পারবেন না।

আরো পড়ুনঃ  ইথিওপিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩ | ইথিওপিয়া গার্মেন্টস ভিসা বেতন কত

তবে আপনারা যে এজেন্সি এর মাধ্যমে যাবেন সেই এজেন্সি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেবেন। তাছাড়া আপনারা যদি অবৈধ এজেন্সির মাধ্যমে যান তাহলে আপনারা বড় রকম সমস্যার সম্মুখীন হবেন। যে কারণেই আপনারা এই বিষয়ে পূর্বে এই বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করবেন। দালালদের খপ্পরে কখনোই পড়বেন না।

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩
রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা ২০২৩

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া আপনি নিজে নিজে অনলাইনের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে পারেন যদি আপনি অনলাইনে দক্ষ হয়ে থাকেন। অথবা আপনি চাইলে যে কোন এজেন্সির মাধ্যমে রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারেন। আপনি যে এজেন্সির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে রোমানিয়া যেতে যাচ্ছেন সেই এজেন্সি আপনারা সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দিবে।

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার দাম কত

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার দাম হয়ে থাকে প্রায় ৪ থেকে ৬ লক্ষ টাকা। বিভিন্ন এজেন্সি অথবা বিভিন্ন দালাল এর ওপর নির্ভর করে ভিসার দাম কম বা বেশি হয়ে থাকে। আপনি যদি সঠিক এজেন্সির মাধ্যমে রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যেতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে প্রায় ৪ থেকে ৬ লক্ষ টাকায়। কিছু ক্ষেত্রে কিছু কম এবং কিছু বেশি টাকা খরচ হতে পারে।

আরো পড়ুনঃ  কানাডা গার্মেন্টস ভিসা-কানাডা গার্মেন্টস ভিসা প্রসেসিং

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যেতে হলে আপনার বেশ কিছু ডকুমেন্টস এর প্রয়োজন হবে। যে সকল ডকুমেন্টগুলো ছাড়া আপনি রোমানিয়া প্রবেশ করতে পারবেন না। তাই ভিসা করার পূর্বে বা পাসপোর্ট করার পূর্বে আপনি আপনার সকল ডকুমেন্টসগুলো সংগ্রহ করে রাখতে পারেন। তাতে করে পরবর্তী সময়ে আপনাকে বেশি কষ্ট করতে হবে না। রোমানিয়া যেতে হলে যে সকল ডকুমেন্টসগুলো প্রয়োজন হয় তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হয়।
  • পাসপোর্ট এর মেয়াদ থাকতে হবে কমপক্ষে ছয় মাস।
  • পাসপোর্টে সর্বনিম্ন দুইটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকতে হবে।
  • সদ্য তোলা ছবির প্রয়োজন হবে।
  • ভোটার আইডি কার্ড বা নাগরিক সনদপত্রের প্রয়োজন হবে।
  • পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট এর প্রয়োজন হবে।
  • মেডিকেল রিপোর্ট।
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর প্রয়োজন হবে। যেই ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে নিয়মিত লেনদেন হয় এমন অ্যাকাউন্ট এর স্টেটমেন্ট প্রয়োজন হবে।
  • করোনার টিকা কার্ড এর প্রয়োজন হবে।
  • আপনি গার্মেন্টসে যে সেক্টরে কাজ করবেন সেই সেক্টরে আপনি অভিজ্ঞতা প্রমাণ করতে হবে বা প্রমান স্বরূপ ডকুমেন্টস প্রয়োজন হবে।

রোমানিয়া গার্মেন্ট ভিসা বন্ধ নাকি খোলা

বর্তমান সময়ে রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা খোলা রয়েছে। করোনা মহামারীর সময়ে বেশ কিছুদিন রোমানিয়া সহ অন্যান্য সকল দেশে ভিসা বন্ধ ছিল। এখন যেহেতু করোনা নিয়ন্ত্রণে এসেছে সুতরাং এখন আর কোন বাধা বন্ধতা নেই। আপনি বর্তমান সময়ে চাইলে এজেন্সির মাধ্যমে এবং সরকারিভাবে খুব সহজেই রোমানিয়ান গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে যেতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ  মালয়েশিয়া মেডিকেল রিপোর্ট চেক করুন ( এক ক্লিকেই )

সরকারিভাবে রোমানিয়া গার্মেন্টস কর্মী নিয়োগ

বর্তমান সময়ে সরকারিভাবে ও রোমানিয়াতে বিভিন্ন কাজ করার জন্য যেতে পারবেন। তেমনি ভাবে আপনারা সরকারিভাবে রোমানেতে গার্মেন্টস কাজের জন্যও যেতে পারবেন। সরকারি ভাবে যেতে হলে অবশ্যই আপনার ডকুমেন্টস এবং যোগ্যতার প্রয়োজন হবে। যে সকল যোগ্যতা গুলো থাকলে আপনি আবেদন করতে পারবেন সেই সকল যোগ্যতা গুলো অবশ্যই প্রয়োজন।

বিভিন্ন সময় রোমানিয়াতে গার্মেন্টস কর্মী এর খোঁজে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকেন। সেখান থেকে আপনারা চাইলে আবেদন করার মাধ্যম দিয়ে সরকারিভাবে এবং রোমানিয়া কোম্পানির মাধ্যম দিয়ে আপনারা বাংলাদেশ থেকে রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসাযেতে পারবেন।

রোমানিয়া গার্মেন্টস কর্মী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

রোমানিয়াতে গার্মেন্টস কাজের জন্য রোমানিয়া কোম্পানিগুলো বিভিন্ন সময় তাদের ওয়েবসাইটে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকেন। সকল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে আমরা অ্যাপ্লাই করে বাংলাদেশ বা অন্যান্য দেশ থেকে রোমানিয়া গার্মেন্টস কাজের জন্য যেতে পারি। রোমানিয়ার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি নিচে উল্লেখ করা হলো।

চাকরির ধরন
চাকরির ধরনবেসরকারি চাকরি
বয়স১৮ বছর প্লাস
শিক্ষাগত যোগ্যতাদেওয়া নেই
চাকরির ক্যাটাগরিম্যাসন, ইলেকট্রনিক্স

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যাওয়ার এজেন্সি

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যাওয়ার এজেন্সি ঢাকায় রয়েছে। ঢাকা, মিরপুর, টেকনিক্যাল মোড়ে যে বুয়েসেল রয়েছে সেই বুয়েসেলের মাধ্যমে আমরা রোমানিয়ার সহ আরো অন্যান্য সকল দেশে বিভিন্ন দেশে নিয়ে যেতে পারবো। অনেকেই বুয়েসেলের ঠিকানা জানেন না সে কারণে আমরা বুয়েসেল এর ঠিকানাটি উল্লেখ করলাম। ঢাকা মিরপুর টেকনিক্যাল মোড়। আপনারা চাইলে এই এজেন্সির মাধ্যমে রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসায় যেতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ  দুবাই ড্রাইভিং ভিসা | দুবাই ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসাতে যেতে কত টাকা লাগে

রোমানের গার্মেন্টস ভিসায় যেতে ৪ থেকে ৬ লক্ষ টাকা লাগে। তবে এজেন্সির ওপর ভিত্তি করে কিছু টাকা কম ও বেশি লাগতে পারে। বাংলাদেশে অনেক এজেন্সি রয়েছে যে এজেন্সি গুলোর রেট এক নয়। সুতরাং সামান্য কম বা বেশি টাকা এজেন্সি পেতে পারে। আবার বিভিন্ন ক্যাটাগরির ভিসার উপর নির্ভর করেও ভিসার দাম কম বা বেশি হতে পারে।

রোমানিয়া গার্মেন্টস কাজে সুযোগ সুবিধা

রোমানিয়ায় যদি আপনি গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে যান তাহলে আপনি বেশ কিছু রকমের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে যাবেন। অন্যান্য কাজের তুলনায় গার্মেন্টস কাজ যারা করে থাকেন তারা অন্যদের তুলনায় বেশি সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকেন। বিভিন্ন ক্যাটাগরির ওপর নির্ভর করে ও সুযোগ সুবিধা কম বেশি হতে পারে। কাজ করে থাকেন তাহলে আপনি যে সকল সুযোগ সুবিধা গুলো পাবেন তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • দুই বছর নবায়নযোগ্য মেয়াদ।
  • কর্ম ঘন্টা সময় ১০ ঘন্টা সপ্তাহে ছয় দিন।
  • বাসস্থান ও খাওয়ার খরচ কোম্পানি বহন করবেন।
  • মেডিকেল ইন্সুরেন্স সকল কিছু কোম্পানি বহন করবেন।
আরো পড়ুনঃ  সৌদি আরবের গার্মেন্টস ভিসা আবেদন, খরচ, বেতন

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে সতর্কতা

রোমানিয়া গার্মেন্টস ভিসা নিয়ে আমাদের সকলের সতর্ক থাকা উচিত। সতর্কতা অবলম্বন না করলে পরবর্তী সময়ে আমরা বড় কোন রকমের সমস্যা সম্মুখীন হতে পারি। ভিসা করার পূর্বে আমাদের এজেন্সি সম্পর্কে খোঁজ নেওয়া উচিত। আমরা যে এজেন্সির মাধ্যমে যাব সে এজেন্সি অবশ্যই বৈধ হতে হবে তাছাড়া অন্য কোন অবৈধ এজেন্সির মাধ্যমে গেলে আমাদের ক্ষতি হবে।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা অবৈধ এজেন্সি এবং দালালদের খবর পড়ে থাকে। সেক্ষেত্রে আমাদের অনেক টাকা লস হয় এবং আমাদের অন্যান্য সমস্যা ও হতে পারে। সুতরাং যাবার পূর্বেই আমাদের এজেন্সি এবং যে লোকের মাধ্যমে যাবেন তার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া জরুরী। বর্তমানে অনলাইনে সব কিছু করা যায় সুতরাং আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে দিয়েও আপনার ভিসা এবং অন্যান্য সকল ডকুমেন্ট চেক করে নিতে পারবেন। তাহলে আপনি প্রতারণার শিকার হবেন না।

সিঙ্গাপুর কাজের বেতন কত-সিঙ্গাপুর বেতন তালিকা

6 Comments

  1. Mostofa kamal

    My from Bangladesh my name is md mostofa kamal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *